কাকরাইলে মা-ছেলে হত্যার ঘটনায় বাবা গ্রেফতার

255

নড়াইল কণ্ঠ : কাকরাইলে মা শামসুন্নাহার করিম ও ছেলে সাজ্জাদুল করিম শাওনকে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় রাজধানীর রমনা থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ( ২ নভেম্বর)রাতে শামসুন্নাহারের ভাই আশরাফ আলী বাদী হয়ে ভগ্নিপতি আবদুল করিম (৫৬), তার তৃতীয় স্ত্রী শারমিন আক্তার মুক্তা (২৫) এবং মুক্তার ভাই আল আমিন জনিসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে মামলাটি করেন।
ওই মামলায় আবদুল করিম ও মুক্তাকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আলী হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবদুল করিম ও তার তৃতীয় স্ত্রী মুক্তাকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ায় ওই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
মামলার এজাহারে নিহতের ভাই আশরাফ আলী উল্লেখ করেন, পারিবারিক শত্রুতার কারণেই শামসুন্নাহার ও তার ছেলে শাওনকে হত্যা করা হয়েছে।
এর আগে সকালে মুক্তাকে আটক করে রমনা থানা পুলিশ। আটকের পর তাকে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।
গত বুধবার ( ১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় কাকরাইলের পাইওনিয়র গলির ৭৯/১ নম্বর বাসার গৃহকর্তা আবদুল করিমের প্রথম স্ত্রী শামসুন্নাহার করিম (৪৬) ও তার ছেলে শাওনকে (১৯) গলাকেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।
এ ঘটনায় ওই রাতেই আব্দুল করিম, গৃহপরিচারিকা রাশেদা বেগম ও দারোয়ান নোমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।