অনন্য মাইলফলকের সামনে অধিনায়ক মাশরাফি

256

নড়াইল কণ্ঠ : বাংলাদেশের জার্সিতে এখন পর্যন্ত ১৮১ ওয়ানডেতে মাঠে নেমেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এর মধ্যে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ৪৯ ম্যাচে। এবার অপেক্ষা অধিনায়ক হিসেবে ওয়ানডেতে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডে ম্যাচে সেই অপেক্ষা ফুরাচ্ছে মাশরাফির।
রবিবার ইস্ট লন্ডনে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সিরিজে তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচেও বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন দলের নিয়মিত ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। এই ম্যাচে টস করার সঙ্গে সঙ্গে অধিনায়ক হিসেবে ৫০তম ম্যাচ খেলার অনন্য মাইলফলক স্পর্শ করবেন ডানহাতি এই পেসার।
মাশরাফির আগে ৫০টি বা তার বেশি ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন আরও দুই ক্রিকেটার। তাদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬৯ ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়ে এই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার সুমন। এছাড়া বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ৫০ ওয়ানডেতে। বাশার-সাকিবের পর তৃতীয় বাংলাদেশি হিসেবে এই মাইলফলক স্পর্শ করতে যাচ্ছেন মাশরাফি।
ওয়ানডেতে মাশরাফির অভিষেক ২০০১ সালের নভেম্বরে। ২০১০ সালে রঙিন ওয়ানডেতে বাংলাদেশের অধিনায়কত্ব পান ডানহাতি এই পেসার। সেবার ব্রিস্টলে মাশরাফির নেতৃত্বে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ। এরপর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ইনজুরিতে পড়ায় দীর্ঘ সময়ের জন্য ছিটকে যান মাশরাফি। তার পরিবর্তে দলকে নেতৃত্ব দেন সাকিব আল হাসান। সাকিব ছাড়াও দলকে নেতৃত্ব দেন মুশফিকুর রহিম। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়কের দায়িত্ব পান মাশরাফি।
মাশরাফির হাত ধরেই ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। ঘরের মাটিতে হয়ে ওঠে অদম্য এক প্রতিপক্ষ। শুধু দেশে নয়, দেশের বাইরেও মাশরাফির হাত ধরে এসেছে সফলতা। ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের পর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সর্বশেষ আসরের সেমিফাইনাল পর্যন্ত খেলেছে বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ দলকে ৪৯ ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে জয়ের পেয়েছেন ২৭ ম্যাচে। হেরেছেন ২০টি ম্যাচে। বাকি দুটি ম্যাচ হয়েছে পরিত্যক্ত হয়েছে। অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফির জয়ের হার শতকরা ৫৭.৪৪, যেটা বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বকালের সেরা।