সানগ্লাস শুধু ফ্যাশন নয়

131

নড়াইল কণ্ঠ : ঝলমলে রোদের কথা ভাবতেই ভালো লাগে। উজ্জ্বল বিচ্ছুরণ দেখলে মনটা ভরে যায়। কিন্তু আলোর তীব্রতা অনেক সময় আমাদের সমস্যায় ফেলে। এ সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য অনেকেই চোখে সানগ্লাস পরে থাকেন। অনেকেরই ধারণা, সানগ্লাস শুধু ফ্যাশন ছাড়া আর কিছুই নয়। এটি ব্যবহারে বিশেষ কোনো লাভ হয় না। সানগ্লাস সম্পর্কে এই ধারণা ঠিক নয়।
সানগ্লাস বা রোদচশমার প্রথম কাজ হচ্ছে চোখকে আরাম দেওয়া এবং সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে চোখকে রক্ষা করা। পাশাপাশি সানগ্লাসের বৈচিত্র্যময় ডিজাইন সানগ্লাসকে ফ্যাশনের একটি প্রয়োজনীয় উপাদানে পরিণত করেছে। ফ্যাশনসচেতন তরুণ-তরুণীদের মধ্যে সানগ্লাসের ব্যবহার বেড়েছে। এতে অনেকেই সানগ্লাসকে শুধু ফ্যাশন বলে ভাবতে পারেন।
প্রকৃতপক্ষে সানগ্লাসের সাহায্যে শতকরা প্রায় ৮৫ ভাগ দৃশ্যমান আলোকে ফিল্টার করা যায়। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা পেতে চাই সানগ্লাস। বিশেষ করে টানা সৈকতে অবস্থান অথবা তুষার দর্শনে অবশ্যই চোখে সানগ্লাস থাকা উচিত। এ ছাড়া ঘরের বাইরে বেশিক্ষণ সূর্যালোকের নিচে কাজে নিয়োজিত অবস্থায়, মরুভূমিতে, চোখে ছানি অস্ত্রোপচার, ইন্ট্রা অকুলার লেন্স সংযোজনের পর, চোখ ওঠা ও প্রদাহের সময় চোখের আলো-ভীতি কমানোর জন্য সানগ্লাস ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।
আজকাল অনেক সানগ্লাসে আলট্রাভায়োলেট রশ্মি প্রতিরোধক প্রলেপও দেওয়া থাকে। সানগ্লাস চোখের ছানিও প্রতিরোধ করে। কাজেই সানগ্লাস শুধু ফ্যাশন নয়, এটি স্বাস্থ্যসম্মতও। তবে এটি হতে হবে সঠিক মানের।