নড়াইলে মাদক ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশ খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি

189

নড়াইলকণ্ঠ : জঙ্গিবাদ নিদিষ্ট গোষ্ঠি বা ব্যক্তি তাদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য এগুলি করে থাকে এবং মানুষজনকে ভূল-ভাল বোঝাই, সোজা পথে কোন কিছু না করেই বেহেস্তে যাওয়া যায়, এমন একটি ভ্রান্ত নীতির মাধ্যমে তারা এগিয়ে যেতে চায়। কিন্তু সংগ্রামী বাংলার মানুষ কোনভাবেই গ্রহণ এবং আমাদের আন্দোলনে আপনারা সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন, যার কারণে আমাদের সাফল্য শতভাগ।
মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) বেলা ১১টায় জেলা পুলিশের আয়োজনে নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ চত্বর সুলতান মঞ্চে মাদক ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মো: দিদার আহম্মদ এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, যুবসমাজ আমাদের সার্বিক শক্তি এবং আগামি দিনে শিশুরা যারা ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দিবে তাদেরকে সুষ্ঠ সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে হবে। যার কারণে আগামি দিনে এদের নেতৃত্বই আমাদের দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নত আয়ের দেশে পরিনত করবে, যার কারনে আমরা যে আন্দোলনে আছি তা যথাযথ করার জন্য এই শক্তিটাকে সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে রাখতে হবে। যার কারণে মাদকদ্রব্য কোনভাবেই গ্রহণ করা যায়না। একটি পরিবারে যদি একজন মাদক সেবি বা বিক্রেতা থাকে তাহলে ঐ পরিবারটা ধ্বংস হয়ে যাবে, পরিবারটা যদি ধবংস হয় তাহলে পরবর্তিতে সমাজ ধবংস হবে, সমাজ থেকে দেশ রুগ্ন হবে, আই রুগ্ন অবস্থান থেকে আমরা অনেকটাই সরে এসেছি। আমরা মাদক দ্রব্য ও জঙ্গি বিরোধী এই দুইটা বিষয়ে সরকারি চিন্তা চেতনাকে সমর্থন করে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এ ব্যাপারে আপনাদের শতভাগ সমর্থন পেয়েছি।
NK_July_2017_02495“মাদক ও জঙ্গিবাদের প্রতিকার, বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গিকার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নড়াইলে মাদক ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশে পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত রেঞ্জ ডিআইজি মো: হাবিবুর রহমান, জেলা প্রশাসক মো: এমদাদুল হক চৌধুরী, জেলা পরিষদের চেয়ারমান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পৌর মেয়র মো: জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডভোকেট এসএ মতিন, আব্দুল হাই সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মো: মনিরুজ্জামান মল্লিক, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম নবী, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এসএ মতিন, জেলা জাসদ (আম্বিয়া) সভাপতি অ্যাডভোকেট হেমায়েতুল্লাহ হিরু, জেলা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু, রওশন আরা লিলি, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্য সচিব ও নড়াইল কণ্ঠের সম্পাদক কাজী হাফিজুর রহমান, বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: সিরাজুল ইসলাম, জেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অশোক কুমার কুন্ডু প্রমুখ।
সমাবেশ শেষে প্রধান অতিথি ডিআইজ মো: দিদার আহম্মদ জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর উদ্যোগে শহরের সড়ক সমূহের যানজটমুক্ত করতে ১০জন কমিউনিটি ট্রাফিক পুলিশিং এবং জঙ্গি ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে শহরে দুইটি বাজারের ১৬জন নৈশ পাহারাদারদের পোষক বিতরণ করেন। এরপর তিনি মাদক পুনর্বাসনের লক্ষ্যে দুইজন মাদকমুক্তকে একটি করে ভ্যান প্রদান করেন।
পরে শহরে বিশাল এক “মাদক ও জঙ্গি বিরোধী র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি রূপগঞ্জ বাজার প্রদক্ষিণ শেষে নড়াইল প্রেসক্লাবে যেয়ে শেষ হয়।
জেলা পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তাগন, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, আইনজীবী, ছাত্র, নারী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।