নড়াইলে কৃত্রিমভাবে বাঁধ দিয়ে মা মাছ ধরলেই হাতে হ্যান্ডকাপ- এসপি

259

নড়াইলকণ্ঠ ॥ লোহাগড়ার বিল ইছামতির সংযোগ বাড়িভাঙ্গার খালে কৃত্রিমভাবে বাঁধ দিয়ে মা মাছ ধরার চেষ্টা করলেই তার হাতে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হবে। তাতে সেই যেই হোন না কেন? কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশ আমজনতাকে সাথে নিয়ে এ বিলের মা মাছ নিধন বন্ধ করা হবে”। গত শুক্রবার (০৯ জুন) বিকাল ৩টায় ব্রাক্ষ্মণডাঙ্গা বাজারে এক সমাবেশে প্রধান অতিথি নড়াইলের পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম এসব কথা বলেন।
তিনি এ সময় আরো বলেন, প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিল ইছামতি নিম্ন এলাকায় খাস জমিতে মা মাছ সংরক্ষণ করে মাছের উৎপাদন বাড়াতে হবে। এ কাজে এলাকার জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসতে হবে। তবে এ বছর কোন অবস্থাতেই মা মাছ নিধন করা চলবে না।
তিনি আরো বলেন, মাদক ব্যবসা যারা করেন তাদেরকে ধরা হবে। বাজারে ক্রামবোর্ড খেলার ছলে আড্ডা বন্ধ করতে হবে। আর এই ক্রামবোর্ড খেলার নামে মাদক ব্যবসা, সেবন ও জুয়া খেলাও চলে, এগুলো হতে দেয়া যাবে না। তিনি দ্রুত এসব কর্মকান্ড বন্ধ করার জন্য লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর আলম খানকে তাৎক্ষনিক নির্দেশ দেন।
তিনি সমাবেশে উপস্থিত সকলের প্রতি অনুরোধ করে বলেন, জঙ্গিদের প্রতি সর্তক দৃষ্টি রাখবেন। ব্যবসার নামে তারা যেন সমাজে ও রাষ্ট্রে ক্ষতি না করতে পারে সে জন্য এলাকার সচেতন মানুষ হিসেবে সজাগ থাকার জন্যও আহব্বান জানান তিনি।
নোয়াগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: জাহিদুল ইসলাম কালুর সভাপতিত্বে অন্যান্যের বক্তব্য রাখেন, লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর আলম খান, নলদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আবুল কালাম আজাদ, সাবেক নোয়াগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান নূরুজ্জামান নূরনব্বী, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্য সচিব কাজী হাফিজুর রহমান, সাংবাদিক সাথী তালুকদার প্রমুখ।