নড়াইলে অধিকার আদায়ের অগ্রপথিক সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট

137

নড়াইলকণ্ঠ ॥ জেলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ মনে করেন, যুগ যুগ ধরে নড়াইলের সাংস্কৃতিক NK_April_2017_02255ঘরোনা মানুষগুলো মানবাধিকার লঙ্ঘন, অপসাংস্কৃতিক, অসামাজিক কর্মকান্ড, মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবি, সন্ত্রাস, মাদক, জঙ্গি ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অগ্রপথিক হিসেবে কাজ করে চলেছে। আর সেই মানুষগুলোই কোন না কোন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত থেকেই এ কাজগুলি সংগঠিত করে আসছে এ যাবৎকাল ধরে। নড়াইল জেলা সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের জেলা। এ জেলাতে জন্ম নিয়েছে প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী উদয় শংকর, আধুনিক বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ধ্রুপদী সংগীতজ্ঞ রবী শংকর, ঔপনাস্যিক নাট্যকার ও চলচ্চিত্র কাহিনীকার নিহার রঞ্জন গুপ্ত, বিশ্বখ্যাত সংগীত শিল্পী কমল দাস গুপ্ত, চারণ কবিয়ালসম্রাট বিজয় সরকার, জারী সম্রাট মোসলেম উদ্দিন, চারণ কবি বিপিন সরকার, চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান সহ অসংখ্য সাংস্কৃতিক গুণি শিল্পী। এ সকল মহান শিল্পীদের গান, কথা ও রং তুলির আঁচড়ে আঁকা ভাবনাসমূহ সাংস্কৃতিক অঙ্গনসহ নড়াইলের মানুষকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদি করে তুলেছে। সেই ধারাবাহিকতায় নড়াইল তথা দেশে যে কোন মানবাধিকার লঙ্ঘন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মানুষের দৃষ্টি গোচর হলেই প্রতিবাদে রাজপথে নেমে প্রতিরোধ করেছে। অন্যায়ের সাথে এ অঙ্ঘনের মানুষ কারও সাথে কখনও আপোষ করেনি। অধিকার আদায়ের অগ্রপথিক নড়াইল জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।
দীর্ঘ বছরপর হলেও নড়াইল জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কমিটি গঠন হওয়াতে নড়াইলের সাংস্কৃতিক অঙ্গন আরো সররব ও সমৃদ্ধ হয়েছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় নড়াইলের সুলতান মঞ্চে ৫দিনব্যাপি বৈশাখী মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। গত মার্চ মাসে মলয় কুমার কুন্ডুকে সভাপতি ও শরফুল আলম লিটুকে সাধারণ সম্পাদক করে আগামি ২ বছরের জন্য ৪৩ সদস্য বিশিষ্ট জেলা সাংস্কৃতিক জোটের কার্যনির্বাহী কমিটি এবং প্রফেসর মুন্সি হাফিজুর রহমানকে প্রধান উপদেষ্টা করে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা কমিটি গঠিত হয়।