নড়াইলে মাদকবিরোধী সমাবেশ , ৩০ জন মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

217

NK_March_2017_0195নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইলে মাদক ও জঙ্গী বিরোধী সমাবেশে ৩০ জন মাদক ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করেছে। এখন থেকে তারা আর মাদক ব্যবসা করবে না। বিকল্প কর্মসংস্থানের মাধ্যমে আত্মসমর্পণকারীরা পরিবার পরিজন নিয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করবেন। এসব মাদক ব্যবসায়ীদের পুর্নবাসনের লক্ষ্যে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহযোগিতাও প্রদান করা হবে।
আত্মসমর্পণকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের হাতে ফুলেল শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন প্রধান অতিথি খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস,এম মনির-উজ-জামান, বিপিএম,পিপিএম।
বুধবার (৮মার্চ) বেলা ১১টায় নড়াইল সরকারী ভিক্টোরিয়া কলেজ সুলতান মঞ্চ চত্বরে নড়াইল জেলা পুলিশের আয়োজনে“ মাদক ও জঙ্গীবাদের প্রতিকার বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গীকার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মাদক ও জঙ্গীবাদ বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
নড়াইলের পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস,এম মনির-উজ-জামান, বিপিএম,পিপিএম। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নড়াইলের জেলা প্রশাসক মোঃ হেলাল মাহমুদ শরীফ, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডভোকেট এস এ মতিন, নড়াইল জেলা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু, নড়াইল আব্দুল হাই ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান মল্লিক, জেলা জাসদের সভাপতি অ্যাডভোকেট হেমায়েত উল্লাহ হিরু, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের পক্ষে ৩নং চন্ডিবরপুর ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুর রহমান ভূঁইয়া প্রমুখ।
সমাবেশে জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ অংশগ্রহন করেন।
প্রসঙ্গত: নড়াইল পৌরসভাসহ জেলার চারটি থানার একটি করে ইউনিয়নকে প্রথম ধাপে মাদকমুক্ত করতে জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। গত ২৩ ফেব্রুয়ারী থেকে তিনমাসব্যাপী অভিযানের মধ্যদিয়ে মাদকমুক্ত ঘোষণার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণের আহবান জানালে সাড়া দিয়ে ৩০ জন মাদক ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করেছে। আত্মসমর্পণকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে পুর্নবাসন করা হবে।
যেসব মাদক ব্যবসায়ীরা আত্মসমর্পণ করেনি তাদের আটকে বিশেষ অভিযান চলমান থাকে। নড়াইল জেলাকে মাদকমুক্ত জেলা ঘোষণার লক্ষ্যে পুলিশ প্রশাসন কাজ করে চলেছে।