ভারতে বাংলাদেশি পাঁসপোর্ট যাত্রীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে চালান দেওয়ার অভিযোগ

167

বেনাপোল প্রতিনিধি : ভারতের গাইঘাটা থানার পুলিশ বাংলাদেশের হারান আলী(৩২)নামে এক পাঁসপোর্ট যাত্রীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে চালান দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
সে বাংলাদেশের যশোর জেলার বেনাপোল পোর্ট থানার পুটখালী গ্রামের কওসার আলীর ছেলে। তার পাঁসপোর্ট নং ১৯৮৫৪১১৯০৭৭০০৫৭৯২ ও ভিসার তারিখ ১৯/০৭/২০১৬ ইং ও মিয়াদ শেষ তারিখ ১৮/০১/২০১৭ ইং ।
সুত্রে জানাগেছে, বাংলাদেশী পাঁসপোর্ট যাত্রী হারান আলী গত ২০/১২/২০১৬ ইং তারিখে আর্ন্তজাতিক বেনাপোল ইমিগ্রেশন দিয়ে বৈধ্যভাবে ভারতের কলকাতার উদ্দেশ্যে বেড়াতে যায়, পরে ২৪/১২/২০১৬ইং তারিখে ফেরার পথে, গাঁয়ঘাটা থানার পুলিশের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়, এক র্পযায়ে তার পাঁসপোর্টটি কেড়ে নিয়ে, তাকে গাঁয়ঘাটা থানায় নিয়ে শারিরীক র্নিযাতন করে। পরে তাকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে দমদম জেলহাজতে প্রেরণ করে।
এ বিষয়ে তার পিতা কওসার আলী জানান, আমার ছেলে ভারতে কলকাতায় বেড়াতে যায়, সে তার ব্যব্যহারের জন্য ২টি মোবাইল ফোন কেনে। পরে কলকাতা থেকে ফেরার পথে গাঁয়ঘাটা থানার পুলিশ তার কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও টাকাসহ পাঁসপোর্ট নিয়ে নেয়, অবশেষে তাকে নারী-পাঁচার ও মটরসাইকেল ছিনতাইয়ের মামলা দিয়েছে।
তিনি আর বলেন, প্রতিনিয়ত বাংলাদেশি পাঁসপোর্ট যাত্রীদের এভাবে ভারতের পুলিশের কাছে মামলার শিকার হতে হচ্ছে। তাহলে পাঁসপোর্টে যেয়ে নিরাপদ কি?
এ বিষয়ে বাংলাদেশি পাঁসপোর্ট যাত্রী হারান আলীর পিতা কওসার আলী তার ছেলেকে ভারত থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য যশোর রাইটসে আবেদন করেছেন।