নড়াইলে গ্রামীণ ব্যাংকে ডাকাতি সংঘটিত

260

নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইলে গ্রামীণ ব্যাংকের মাইজপাড়া শাখায় দিবালোকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতির সংঘটিত হয়েছে। ডাকাতদল ২২ হাজার টাকা, দুটি মোটর সাইকেল ও সাতটি মোবাইল সেট লুট করে পালিয়ে যায়। রবিবার (২২ জানুয়ারি) বিকেল পৌনে চারটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
গ্রামীণ ব্যাংক মাইজপাড়া শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন জানান, প্রথমে চারজন লোক অফিসে প্রবেশ করে। এরপর আরেকজন লোক গার্ডকে জিম্মি করে নিয়ে অফিসের ভীতরে নিয়ে আসে এবং দু’পাশের দরজা আটকিয়ে দেয়। ডাকাতরা সবাই পিস্তল বের করে ব্যাংকের সবাইকে জিম্মি করে ফেলে। এরপর ক্যাশিয়ারের কাছ থেকে ভোল্টের চাবি নিয়ে এবং ক্যাশ কাউন্টারে গিয়ে টাকা না পেয়ে আমাদের প্রত্যেকের মানব্যাগ নিয়ে মোট ২২ হাজার টাকা নেয়। ডাকাতদল ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে থাকা সাতটি মোবাইল সেট এবং ব্যাংকের সিনিয়র কেন্দ্র ব্যবস্থাপক মফিদুলের প্লাটিনা এবং আঃ লতিফের হিরো হোন্ডা স্পিলিন্ডার মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। ওই পাঁচ যুবকের আনুমানিক বয়স ১৮ থেকে ২০ বছরের মধ্যে হবে। এদের মধ্যে একজনের মুখে মাস্ক পরা এবং অন্যচারজনের মুখ খোলা ছিল।
তিনি জানান, ব্যাংকের টাকা বেলা ১টার দিকে ব্যাংকে জমা দিয়ে দেয়ায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা হয়েছে।
গ্রামীণ ব্যাংক নড়াইল এরিয়া ম্যানেজার খন্দকার মিজানুর রহমান জানান, ব্যাংকে কোন সিসি ক্যামেরা না থাকায় ডাকাতদের সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে আগামীতে ব্যাংকগুলিতে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে।
নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ দেলোয়ার হোসেন খান জানান, খবর পাওয়ার পর পুলিশ নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের জন্য জেলার বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চলছে।
এদিকে খবর শোনার পর নড়াইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, স্থানীয় মাইজপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জিল্লুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।