‘ঘুষসহ’ আটক সওজের উপসচিব কারাগারে

120

নড়াইলকণ্ঠ ॥ দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের উপসচিব মিজানুর রহমানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।
সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপসচিবকে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। অন্যদিকে উপসচিবের পক্ষের আইনজীবী জামিন চেয়ে আবেদন করেন।
উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক জামিনের আবেদন খারিজ করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
গ্রেপ্তার উপসচিব মিজানুর রহমান প্রেষণে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আইন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।
সড়ক ও জনপথ থেকে ইজারাগ্রহীতা মাঈনুদ্দিন চৌধুরীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুদক রবিবার রাত ৯টার দিকে এ অভিযান চালায়। মিজানুর রহমান একটি তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য অভিযোগকারীর কাছ থেকে এর আগে এক লাখ ৯০ হাজার টাকা ঘুষ নেন বলে জানান। পরে আরো নয় লাখ টাকা দাবি করেন তিনি। এ বিষয়ে মাঈনুদ্দিন অভিযোগ করেন দুদকের কাছে।
এর পরিপ্রেক্ষিতে গত রাতে দুদকের একটি দল খিলগাঁওয়ের একটি ফাস্টফুডের দোকানে অবস্থান নেয়। এ সময় ঘুষের টাকাসহ মিজানকে আটক করে দলটি। পরে তার বিরুদ্ধে খিলগাঁও থানায় সরকারি কর্মকর্তার ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়।
খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, আমাদের এখানে দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি এজাহার দায়ের করেছেন। এজাহারে আসামি করা হয়েছে সড়ক ও সেতু বিভাগের উপসচিব মিজানুর রহমান সাহেবকে। দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় উপসচিবের বিরুদ্ধে এ এজাহার দায়ের করা হয়েছে। আমরা মামলাটি রেডি করেছি। তিনি বলেন, ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, এটা এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।