নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজের অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত, প্রতিবাদে কর্মবিরতি

509

নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহম্মদ সামাদ উল্লাহ মজুমদারকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। প্রতিবাদে কলেজের শিক্ষকরা দু’দিনের কর্মবিরতি ও প্রতিবাদ কর্মসূচি শুরু করেছে। এদিকে ঘটনা তদন্তের জন্য পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
জানাগেছে, গত ৩ জানুয়ারি দুপুর সোয়া দুইটার দিকে অফিস চলাকালীন সময়ে ছাত্রলীগ নড়াইল সরকারী ভিক্টোরিয়া কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক রকিব্জ্জুামান পলাশ তার দুই সহযোগীকে নিয়ে অধ্যক্ষের কক্ষে প্রবেশ করে। বিভিন্ন সময়ের অনৈতিক দাবি মেনে না নেয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে অধ্যক্ষকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং কলেজ বিতাড়িত করার হুমকি দেয়। আকষ্মিকভাবে এমন ঘটনায় অধ্যক্ষ মুহাম্মদ সামাদ মজুমদার হতবিহ্বল হয়ে পড়েন।
বিষয়টি শিক্ষকদের মাঝে জানাজানি হলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার (৪ জানুয়ারী) সকালে শিক্ষক পরিষদের এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহম্মদ সামাদ উল্লাহ মজুমদারের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন শিক্ষক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাসুদ আহম্মদ, শাহানারা বেগম, সায়েম আলী খান, আবু জেহাদ আনসারী প্রমুখ। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার থেকেই কর্মবিরতি শুরু করেছে শিক্ষকগন। বৃহস্পতিবার কর্মবিরতির পাশাপাশি প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে ঘটনা তদন্তে কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর বরুন কুমার বিশ্বাসকে আহবায়ক করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী কর্মসূচী গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাসুদ আহম্মদ।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফায়েল মাহমুদ তুফান জানান, তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তবে অভিযুক্ত পলাশকে কয়েকবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।