সংসদ নির্বাচনে এককভাবে অংশ নেবে জাতীয় পার্টি।

153

 রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দলটির ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মহা সমাবেশে চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এ কথা বলেন। জীবনের শেষ চাওয়া হিসাবে, আরেকবার ক্ষমতায় যেতে চান উল্লেখ করে, এরশাদ তার নেতা কর্মীদের দলকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান

দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী, তাই উচ্ছ্বাস আর আবেগের কমতি নেই নেতা কর্মীদের মাঝে। নেচে গেয়ে উদযাপন করতে থাকেন জাতীয় পার্টির ৩১তম জন্মদিন। রোববার সকাল থেকেই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ উপলক্ষে জড়ো হতে থাকেন ঢাকাসহ সারা দেশ থেকে আসা জাতীয় পার্টি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থক।

সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির (জাপা) সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ বলেছেন, এবার দলকে ক্ষমতায় নিতে হবে। এবার জাপা কারও ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হবে না। নিজেরাই ক্ষমতায় যাবে।

জাপার সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান বলেন, দেশে এখন কর্মসংস্থান নেই। দেশের অবস্থা ভালো না। দেশে গণতন্ত্রও নেই।

এরপরে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আগামী নির্বাচনে তার দল ক্ষমতায় গেলে নির্বাচন ব্যবস্থা পরিবর্তনসহ বেশকিছু পরিবর্তনের কথা জানান।

নিজের জীবনের শেষ নির্বাচন আখ্যা দিয়ে এরশাদ বলেন, “জীবনের শেষ প্রান্তে এসে পৌঁছেছি। কতদিন আর বাঁচবো…। আমাকে বাঁচাতে হলে জাতীয় পার্টিকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে। আমাকে নতুন জীবন দাও।

“আমার শেষ জীবনের চাওয়া- জাতীয় পার্টিকে আবার ক্ষমতায় দেখতে চাই। দুয়ার উন্মোচিত হয়েছে। ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য শক্তি প্রয়োজন, নির্ভর করছে তোমাদের ওপর। দলকে শক্তিশালী কর।”

নেতা-কর্মীদের এরশাদ বলেন, ‘ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য শক্তি প্রয়োজন। দলকে শক্তিশালী করো। ক্ষমতায় দুয়ারে আমরা অবশ্যই পৌঁছাবো। আমরা এককভাবে তিনটি নির্বাচন করে বেশি আসন পেয়েছি। জোটগত নির্বাচন করে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। এবার আমরা এককভাবে নির্বাচন করব।’

জনগণের মাঝে বেঁচে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করে, সাবেক এই রাষ্ট্রপতি দলের নেতাকর্মীদের দেশের যে কোন প্রয়োজনে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।