মাশরাফি বাংলাদশে দলরে কান্ডরি : কাইলস মিলস

116

চার বলে চার রান। রুদ্ধশ্বাসে কাঁপছে মিরপুরের গ্যালারি। কিন্তু রুবেল হোসেন সব তীব্র প্রতীক্ষার অবসান ঘটালেন কাইলস মিলস স্ট্যাম্প ভেঙ্গে ফেলে। নেচে উঠলো গ্যালারি। উৎসবে মেতে উঠলো সারা বাংলা। ইতিহাসে প্রথমবারের মত নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইট ওয়াশ করলো বাংলাদেশ। ছয় বছর আগের ওই বিস্বাদের স্মৃতি এখনো টাটকা কাইলসের হৃদয়ে।

তিনি বলেন, ‘সত্যি আমি খুব হতাশ হয়ে পরেছিলাম। ম্যাচ জয়ের খুব কাছে থেকেও, রুবেলের দুর্দান্ত ডেলিভারি সব শেষ করে দেয়। ওই সিরিজে আমরা একটা ম্যাচও জয় পায়নি। কারণ বাংলাদেশ অসাধারণ ভাবে ভালো খেলেছে।’ ছয় বছর পর ঘরের মাঠে বর্তমান বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং বোলিংয়ে মুগ্ধ কাইলস মিলস। কিউইদের কাছে সিরিজ হারলেও টাইগারের দারুণ প্রশংসা করলেন কাইলস।

তিনি বলেন, ‘কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ দারুণ খেলছে। বিশেষ করে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে তাদের জয়ের মানসিকতা প্রমাণ করে তারা অনেক এগিয়েছে। বিদেশের মাটিতে আরো বেশি খেলার অভিজ্ঞতা হলে দেখবেন এই দল ২০১৯ বিশ্বকাপে স্মরণীয় কিছু করবে।’

বর্তমান বাংলাদেশ দলে তামিম ইকবাল মিলসের প্রিয় ক্রিকেটার। আর ২০০১ সালে একই বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া মাশরাফিকে আদর্শ মানের ধৈর্যের প্রতীক হিসেবে বলেন তিনি। কারণ হাঁটুর ইনজুরিতে ১৫ বছরের ক্রিকেট কেরিয়ার গেলো বছর শেষ হয়েছে এই ক্রিকেট তারকার।

তিনি বলেন, ‘মাশরাফি বাংলাদেশ দলের প্রাণ। আর হবেই বা না কেন। এতবার হাঁটুর ইনজুরির পরেও খেলে যাচ্ছে। ব্যাপারটা অবিশ্বাস্য। এটা সম্ভব হয়েছে, ওর নিজের প্রতি প্রতিজ্ঞা আর একাগ্রতার কারণে।’

একদিন ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন মাশরাফি। তাই বিসিবিকে মাসরাফির মত আদর্শ অধিনায়ক খুঁজতে এখনই পরামর্শ দিলেন মাশরাফি।