নড়াইল জেলা পরিষদে কে চেয়ারম্যান হবেন?

710

পাবলিকের মতামত নির্বাচনে ভোটের হিসাব দাড়াবে ৮০/২০

 নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে জেলার রাজনীতিতে নয়া মেরুকরন শুরু হয়েছে। কে হচ্ছেন চেয়ারম্যান, মন্দের ভাল কে, দলের জন্য, এলাকার ভাল-মন্দ দেখার জন্য কাকে সব সময় পাশে দেখা যায় ইত্যাদি ব্যাপক জল্পনা শুরু হয়েছে। ভোট কারা কারা নিয়ন্ত্রণ করে। ইউপি নির্বাচনে টাকা দিয়ে টিকিট নিতে হইছে, ভোট নিতে হলে গিভ এন্ড টেক পদ্ধতিতে আসতে হবে। গত ২/৩ দিন ধরে এসব কথা চ য়ের দোকানে, রেস্টুরেন্টে, অফিসে, ক্লাবে, রাস্তা-ঘাটে, গাড়িতে চলছে। এসব তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায় রাজনৈতিক নতুন মেরুকরণ, পাবলিকের মতামতে জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটের হিসাব দাড়াতে পারে ৮০/২০তে।
এ জনমত জরীপে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাস ৬০ভাগ সমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন। মাঠ পর্যায়ে এভাবে প্রচারণা চললে চুড়ান্ত পর্যায় ৮০ভাগ ভোট অর্জন করতে তিনি সক্ষম হবেন। সোহরাব হোসেন বিশ্বাস একটু উদার ও অকৃপণ হলেই আওয়ামী সমর্থিত প্রার্থীর ভরাডুবিও ঘটতে পারে এমন মন্তব্য করেছেন নড়াইলের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।
এদিকে প্রতীক বরাদ্দের পর স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাসের সাথে বেশ উৎফুল্লই দেখা গেছে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোসকে। ইতিমধ্যে জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গণসংযোগ শুরু করেছেন অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাস। তবে জেলার নেতারা এখন পর্যন্তু প্রচার-প্রচারনায় মাঠে নামেনি।
সাধারণ নাগরিকদের মাঝে এমন ধারনা ব্যাপক শুনা যাচ্ছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ আইয়ুব আলী (আনারস) প্রতীকে এবং বঞ্চিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নড়াইল পৌরসভায় চার চার বার নির্বাচিত সাবেক মেয়র জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাস (চশমা) প্রতীকে।
উল্লেখ্য, নির্বাচনে প্রায় ২০জন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নের চেষ্টা করে সভাপতি-সম্পাদকসহ সকলকে পেছনে ফেলে অ্যাডভোকেট সৈয়দ আইয়ুব আলী দলীয় মনোনয়ন পায়। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের প্রার্থীসহ ৪জন মনোনয়নপত্র জমা দেন। অ্যাডভোকেট সাঈফ হাফিজুর রহমান খোকন ও খোন্দকার মাসুদ হাসান মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন।
এদিকে, অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাসের স্বাক্ষর জাল করে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের চেষ্টা করে অবশেষে ব্যর্থ হয় ষড়যন্ত্রকারীরা।
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাস এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নড়াইল পৌর মেয়র মো: জাহাঙ্গীর হোসেন বিশ্বাস উভয় সম্পর্কে চাচাতো ভাই।