কক্সবাজার মুক্ত দিবস ১২ ডিসেম্বর

140

আজ ১২ ডিসেম্বর, সীমান্ত জেলা কক্সবাজার পাকিস্তানি হানাদারমুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে কক্সবাজার বান্দরবান জেলায় অধিনায়ক ক্যাপ্টেন (অবঃ) আবদুস সোবহানের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা কক্সবাজার শহরের প্রাণ কেন্দ্রস্থল লালদীঘির পাড়ের পাবলিক হল ময়দানে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তেলন করে অঞ্চলকে শত্রুমুক্ত ঘোষণা করেন।

এছাড়া শত্রুমুক্ত ঘোষণা করেন জয় বাংলা বাহিনীর অধিনায়ক কামাল হোসেন চৌধুরী। তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের ডিসেম্বর তাঁর নেতৃত্বে একদল মুক্তিযোদ্ধা তৎকালিন বার্মার (মিয়ানমার) শরণার্থী ক্যাম্প থেকে নাফ নদী পার হয়ে বাংলাদেশে ফিরেন। ১০ ডিসেম্বর তাঁরা উখিয়ায় পৌঁছান। সেখান থেকে ১২ ডিসেম্বর সকালে সশস্ত্র অবস্থায় চারটি গাড়িতে জয় বাংলা শ্লোগান দিতে দিতে তাঁরা কক্সবাজার শহরে পৌঁছান। সকাল ১০টায় শহরের ঐতিহাসিক পাবলিক হল মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে কক্সবাজারকে শত্রুমুক্ত ঘোষণা করা হয়।

কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মুহাম্মদ শাহজাহান বলেন, ডিসেম্বর ভারতীয় বাহিনী কক্সবাজার বিমানবন্দরে পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীর ক্যাম্পে হামলা চালায়। এতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বেশ কয়েকজন হতাহত হয়। ডিসেম্বর আরও হামলার আশঙ্কায় হানাদার বাহিনী কক্সবাজার ত্যাগ করেন। ওই দিন থেকে কার্যত কক্সবাজার শত্রুমুক্ত হয়।

উপলক্ষে কক্সবাজারে বিভিন্ন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে উখিয়ার মরিচ্যায় মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়েমুক্তিযোদ্ধা সম্মেলন আলোচনা সভা।

উপলক্ষে কক্সবাজারে বিভিন্ন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে উখিয়ার মরিচ্যায় মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়েমুক্তিযোদ্ধা সম্মেলন আলোচনা সভা।