‘পিপল্স ক্লাইমেট মার্চ’ সংবাদ সম্মেলন

121

নড়াইল কণ্ঠ : জলবায়ু ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠায় আন্তর্জাতিক জলবায়ু আদালত গঠন ও জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী শিল্পোন্নত দেশগুলোর উপর গ্রীণহাউজ গ্যাস নির্গমনের মূল দায়িত্ব আরোপ করে আইনি বাধ্যবাধ্যকতায় আওতায় এনে সার্বজনীন চুক্তি করতে হবে। মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) রিপোর্টার্স ইউনিটি ও ঢাকায় জিক্যাপ আয়োজিত ‘পিপল্স ক্লাইমেট মার্চ’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন। গ্লোবাল কল টু একশন এগেইনিস্ট পভার্টি (জিক্যাপ)’র জাতীয় সমন্বয়কারী আবদুল আউয়ালের সঞ্চালনায় ৯ দফা দাবি সম্বলিত সম্মেলন পত্র উপস্থাপন করেন প্রাণ’র নির্বাহী পরিচালক ও খাদ্য নিরাপত্তা নেটওয়ার্ক (খানি)’র বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম মাসুদ। সম্মেলনে অর‌্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জলবায়ু বিশেষজ্ঞ ও সিএসআরএল’র সহ-সভাপতি জিয়াউল হক মুক্তা, সুশাসনের জন্য প্রচারাভিযান (সুপ্র)’র পরিচালক এলিসন সুব্রত বাড়ৈ, আমার অধিকার ফাউন্ডেশন সভাপতি শিশির শীল, বাপা’র সহ-সম্পাদক মিহির বিশ্বাস, নিরাপদ নৌরুট বাস্তবায়ন আন্দোলনের সদস্য সচিব আমিনুর রসুল বাবুল ও সিএসআরএল নির্বাহী পরিষদ সদস্য খুজিস্তা বেগম জোনাকী।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দেশের বিপুলসংখ্যক জনগোষ্ঠীর জীবিকা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং ভবিষ্যতে আরো অপূরনীয় ক্ষতি হতে পারে। বিগত ৩০ বছরের অর্জিত অসামান্য আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ব্যর্ধ হয়ে যাবার পাশাপাশি ভবিষ্যত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিও কমে যেতে পারে। ‘জাতীয়ভাবে নির্ধারিত অনুমিত অবদান বা আইএনএসডি’ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সব দেশের সদিচ্ছাসহ সকল প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন একটি আইনী বাধ্যবাধকতার আওতায় আনার কথাও তুলে ধরা হয় পত্রটিতে। আইনী বাধ্যবাধকতা ব্যতীত আসনড়ব প্যারিস প্রটোকলও একটা চরম তামাশায় পরিণত হতে পারে বলে সম্মেলনে উপস্থিত বক্তাগণ আশংকা ব্যক্ত করেন।

জিয়াউল হক মুক্তা বলেন, উন্নত বিশ্বের রাষ্ট্রসমুহ আইএনডিসি’তে তাদের প্রতিশ্রুতির মাত্র ৫ ভাগ উল্লেখের মাধ্যমে নিজেরাই তাদের প্রতিশ্রুিত ভেঙ্গেছেন এবং আত্মপ্রবঞ্চনা করেছেন নিজেদের সাথে। শুধু তাই নয় তারা সমগ্র পৃথিবীর জনগণের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। অবিলম্বে তাদের সকল প্রতিশ্রুিত বাস্তবায়নে তাদের কমিটমেন্ট রক্ষা করতে হবে নতুবা তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আইন প্রণয়ন করতে হবে। আর আইন না হলে তারা তাদের প্রতিশ্রুতি যে ভাঙ্গবেন তার প্রমান তারা নিজেরাই।

শিশির শীল আসনড়ব প্যারিস সম্মেলনে যোগদানকারী সরকারী প্রতিনিধিদের উদ্দেশে বলেন, তারা যেন জলবায়ু ক্ষতির স্বীকার দেশসমূহের মূখপাত্র হিসাবে জোরালো ভূমিকা পালন করেন যাতে করে জলবায়ু ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের একটা সμিয় ভূমিকা পরিলক্ষিত হয়। সুশীল সমাজের গনদাবি তুলে ধরার ক্ষেত্রেও জোরালোভাবে ভূমিকা পালন করবেন তারা এই আহবান তাদের প্রতি রাখেন তিনি।

সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে কথা বলেন আবদুল আউয়াল, জিয়াউল হক মুক্তা, শিশির শীল
ও মিহির বিশ্বাস।