জঙ্গিরা সব ধর্মের লোককেই হত্যা করে -পুলিশ মহাপরিদর্শক

150

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট ॥ পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, ‘জঙ্গিরা কোনো বিশেষ ধর্মের লোককে মারে না। তারা মুসলিম, হিন্দু, খ্রিস্টান সব ধর্মের লোককেই হত্যা করছে।’বাগেরহাটে খানজাহান আলী ডিগ্রি কলেজ মাঠে বৃহস্পতিবার দুপুরে আয়োজিত কমিউনিটি পুলিশিং ও জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
শহীদুল হক বলেন, ‘আমরা জঙ্গিদের জঙ্গি হিসেবে দেখি। এদের সংখ্যা খুব বেশি না। জঙ্গিবাদ বাংলাদেশের নতুন চ্যালেঞ্জ। তারা অত্যন্ত দুর্বল অবস্থায় আছে। জনগণের সম্পৃক্ততায় অল্প সময়ের মধ্যে আমরা এদের নির্মূল করতে সক্ষম হব।’
মাদকের সঙ্গে অপরাধের সম্পৃক্ততা উল্লেখ করে সমাবেশে তিনি বলেন, ‘শিশুকাল থেকে মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে জানাতে হবে। যাতে তারা কখনোই বিপথগামী না হয়। কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।’
পুলিশ প্রধান বলেন, ‘ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলে পুলিশ ও জনগণের মধ্যে যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে, কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে সেই দূরত্ব কমিয়ে আস্থা ও বিশ্বাসের পরিবেশ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছি।‘আমাদের পুলিশ জনগণের পুলিশ’- উল্লেখ করে এ কে এম শহীদুল হক বলেন, কমিউনিটি পুলিশ কমিউনিটি নিয়ে কাজ করবে। এতে সমাজে অপরাধ প্রবণতা কমে আসবে।
বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুস সামাদ, পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস এম মনির-উজ-জামান, খুলনা মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার নিবাস চন্দ্র মাঝি, বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুস সামাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন-২০২১ এবং ভিশন-২০৪১ লক্ষ্য অর্জনের জন্য দেশে শান্তি নিশ্চিতে পুলিশিং কার্যক্রম এবং কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম এগিয়ে নিতে হবে। উন্নয়নের পূর্বশর্ত শান্তিশৃঙ্খলা নিশ্চিত করা।
সমাবেশে বাগেরহাটের নয়টি উপজেলার কমিউনিটি পুলিশিং ইউনিট ছাড়াও পার্শ্ববর্তী জেলার কমিউনিটি পুলিশ, জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।