নড়াইল জেলা পরিষদের আ’লীগ মনোনীত প্রার্থীকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ

288

নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ আইয়ুব আলীকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে নিলেন দলীয় নেতাকর্মীসহ এলাকার সাধারণ মানুষ। সোমবার (২৮ নভেম্বর) সড়ক পথে ঢাকা থেকে নড়াইলের আসার পথে কালনা ঘাট থেকে বরণ করে নেয়া হয়।
অ্যাডভোকেট সৈয়দ আলী দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর সোমবার ঢাকা থেকে নিজ এলাকা নড়াইলে আসেন। তাঁর নড়াইলে আসার খবর পেয়ে এলাকার নেতাকর্মীরা কালনা ফেরীঘাটে বরণের অপেক্ষায় থাকেন।
বিকাল সাড়ে চারটার দিকে তিনি কালনা ঘাঁটে পৌছালে দলীয় কর্মীরা ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করে বরণ করে নেন। এসময় সংক্ষিপ্তভাবে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন।
পরে তিনি মোটর সাইকেল বহর যোগে লক্ষ্মীপাশা মোল্যার মাঠে যান। সেখানে তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে মনোনয়ন দেয়ায় নড়াইলবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ভোটে নির্বাচিত হলে অবহেলিত নড়াইলের উন্নয়নে প্রাণপণ চেষ্টা করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন’।
এ সময় লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার আব্দুল হান্নান রুনু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আজাদ শিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মনজুরুল করিম মুন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী বনি আমিন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, লোহাগড়া বাজার বণিক সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি শরিফুল ইসলাম, লোহাগড়া ইউপি’র চেয়ারম্যান শিকদার নজরুল ইসলাম, লক্ষ্মীপাশা বাজার সমিতির সাধারণ সম্পাদক বি.এম লিয়াকত হোসেন, সৈয়দ শরিফুল ইসলাম, সরদার আব্দুল হাইসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সন্ধ্যায় তিনি নড়াইল জেলা শহরে আসেন এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন।
অ্যাডভোকেট সৈয়দ আইয়ুব আলীর গ্রামের বাড়ি লোহাগড়া উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের আমডাঙ্গা গ্রামে। বর্তমানে তিনি লক্ষ্মীপাশায় বাড়ি করেছেন।
তিনি বর্তমানে নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং বিগত কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। পেশাগতভাবে তিনি একজন আইনজীবী। নড়াইল জজকোর্টে আইনপেশায় কয়েকবছর নিয়োজিত থাকার পর তিনি ঢাকায় আইনপেশার পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িত রয়েছেন।