পরমাণু বিজ্ঞানী সিএস করিম আর নেই

104

নড়াইল কণ্ঠ : তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. সিএস করিম মারা গেছেন(ইন্নালিল্লাহি …রাজেউন)। নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত ১১টার দিকে মৃত্যু হয় এই পরমাণু বিজ্ঞানীর।

প্রয়াত ড. করিমের স্বজনরা জানান, নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হলে বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। শুক্রবার রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে নিয়ে লাইফ সাপোর্ট দিয়েও বাঁচানো যায়নি তাকে।

স্বজনা আরও জানান, রাতে ড. সিএস করিমের মরদেহ শ্যামলীর আল মারকাজুল ইসলামিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে। শনিবার বেলা ১১টায় বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

সিএস করিমের জন্ম ১৯৪৮ সালের ৭ জানুয়ারি নানা বাড়ি চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের চিনকি আস্তানার তাকিয়া বাড়িতে। বাবা বিচারক ছিলেন বলে মাধ্যমিক পর্যন্ত তার শিক্ষাজীবন কেটেছে দেশের বিভিন্ন জেলায়।

১৯৬৪ সালে এসএসসি পাস করা সিএস করিম পদার্থ বিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। পরে রাশিয়ায় তিনি নিউক্লিয়ার ফিজিক্সে পিএইচডি ও পোস্ট ডক্টরেট করেন।

বাংলাদেশ আনবিক শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন ছাড়াও আন্তর্জাতিক আনবিক শক্তি সংস্থার সদস্য ছিলেন তিনি। কর্মজীবনে পেশাদারি দক্ষতার জন্য সহকর্মীদের মধ্যে তিনি ছিলেন প্রশংসিত।

বাংলাদেশে বিদ্যুৎ চাহিদা মেটাতে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে তোলার ওপর সব সময় জোর দিতেন সিএস করিম। তিনি ছিলেন পরমাণু নিরাপত্তা বিষয়ে বিশেষজ্ঞ।

২০০৭ সালের জানুয়ারিতে ফখরুদ্দীন আহমদ নেতৃত্বাধীন উপদেষ্টা পরিষদ বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব নিলে তাতে কৃষি ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান সিএস করিম। সে সময় শস্য ফলন বাড়াতে তিনি সারা দেশ চষে বেড়ান, যা প্রশংসিত হয়।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব পালনের আগে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের নীতি-নির্ধারণী বিভিন্ন কমিটিতে দায়িত্ব পালন করেন সিএস করিম। তিনি বাংলাদেশ ফিজিক্যাল সোসাইটিরও সভাপতি ছিলেন। তিনি সিএসআএরএল সভাপতি ছিলেন।