নায়িকা থেকে গায়িকা

2

ডেস্ক রিপোর্ট: কলকাতার মিষ্টি মেয়ে ঋতাভরী চক্রবর্তী। কলকাতার পাশাপাশি কাজ করছেন বলিউডের সিনেমাতেও। নিজের সৌন্দর্য্য আর অভিনয় দিয়েই দর্শকদের মন কেড়েছেন এই অভিনেত্রী। অভিনয়ের বাইরে নাম লিখিয়েছেন প্রযোজনাতেও। হয়েছেন অনেকটাই সফল। ঋতাভরী প্রযোজিত প্রথম গান ভিডিওতে এই অভিনেত্রীর সঙ্গে মডেল হয়েছেন বলিউডের আয়ুষ্মান খুরানা। প্রযোজনা করেছেন সিনেমাও।

এবার এই দুই পরিচয়ের বাইরে হাজির হয়েছেন আরও এক নতুন রূপে। প্রথমবারের মতো নিজের কণ্ঠে তুলে নিলেন সুর, গাইলেন গান। ‘রূপসাগরে মনের মানুষ কাঁচা সোনা’ শিরোনামের এই গানটি সম্প্রতি অবমুক্ত হয়েছে ইউটিউবে। প্রথম গানেই মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন এই অভিনেত্রী ও গায়িকা।

সম্বিত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গীত পরিচালনায় খুশবু লোহারিয়াল ও রাহুল দাসগুপ্তের পরিবেশনায় এই ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন আত্রেয়ী সেন। গান ভিডিওটি প্রযোজনা করেছেন ঋতাভরীর মা শতরূপা সান্যালের প্রোডাকশন হাউস।

চার মিনিট একুশ সেকেন্ডের ভিডিওতে নিজের স্কুলকে ঘুরিয়ে দেখিয়েছেন ঋতাভরী। ক্লাসরুম, চক পেন্সিল, বেঞ্চ, করিডর, ক্লাসটিচারের বকুনি সব রেখে দিয়েছেন সযত্নে।

ঋতাভরী বলেন, ছোটবেলা থেকেই এই গানটা আমার ভীষণ প্রিয়। ছোটবেলায় আমরা যেভাবে জীবনটাকে ভাবি, স্বপ্ন দেখি, বড় হয়ে অনেকটাই বদলে যায়। মন থেকে যাকে চায় মানুষ, সবসময় যে তাকে পাওয়া যায়; এমনটা হয় না। এই গানটা গাইবো আগেই মনস্থির করেছিলাম। আমার দিদি চিত্রাঙ্গদার মাথায় প্রথম এই ভাবনাটা আসে। আমি আজ যেখানে দাঁড়িয়ে তার পিছনে আমার স্কুলের অবদান তো রয়েছেই। ‘দেখেছি রূপসাগরে মনের মানুষ’ গানের অনেক ভার্সন আছে। আমার ইচ্ছা ছিল অন্যরকম কিছু ভাবনা নিয়ে মিউজিক ভিডিওটা বানানো। সেই ভাবনা থেকেই এই গানটি করা।’

ঋতাভরী অভিনেত্রীর বাইরেও একজন শিক্ষিকা। কলকাতার সল্টলেকের ‘দ্য আইডিয়াল স্কুল ফর দ্য ডেফ’ স্কুলে শিক্ষকতা করেন তিনি। সেটি শ্রবণশক্তিহীন বাচ্চাদের স্কুল। ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যত সুদৃঢ় করার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। অভিনেত্রী জানান, ‘আমার গানের ভিডিওতে আমার ছোটবেলার কিছু অংশ রয়েছে, তাতে আমি ও আমার বেস্ট ফ্রেন্ডের চরিত্রে অভিনয় করেছে আইডিয়াল স্কুলের দু’জন ছাত্রী; অঙ্কনা ও আয়েশা। কী অনবদ্য অভিনয় তাদের!’

তার স্কুল ‘হরিয়ানা বিদ্যামন্দির’কে শ্রদ্ধা জানাতেই ঋতাভরীর গলায় এই গান।- এমনটাই জানান তিনি।