অস্ট্রেলিয়ার সেনারা অবৈধভাবে ৩৯ জন বেসামরিক ব্যক্তিকে আফগানিস্তানে হত্যা করেছে

22

ডেস্ক রিপোটার: সরকারি তদন্ত প্রতিবেদনে এধরনের যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার দেশটির চিফ অব ডিফেন্স ফোর্স জেনারেল অ্যাঙ্গাস ক্যাম্পবেল জানান, অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ বাহিনী আফগানিস্তানে ২৩টি ঘটনায় নিরস্ত্র বন্দী, কৃষক বা বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা করে। এজন্যে স্পেশাল এয়ার সার্ভিস রেজিমেন্টের ২৫ জন সদস্যরা দায়ী।

চার বছর তদন্তের পর বৃহস্পতিবার ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করে অস্ট্রেলিয়ার সামরিক কর্তৃপক্ষ (এডিএফ)। ২০০১ সালে ইঙ্গ-মার্কিন অভিযানে অস্ট্রেলিয়ার সেনাসদস্যরা শিশুসহ নিরস্ত্র মানুষকে হত্যার পর ২০১৬ সালে তদন্ত কমিটি গঠনের পর অস্ট্রেলীয় সরকার বিষয়টি চাপা দেয়ার চেষ্টা করেছিল।

অপরাধ ঘটানোর সময় দায়ী সেনারা ‘বিভ্রান্ত’ ছিল না বলে জেনারেল ক্যামবেল জানান। ভুলবশতও এসব মানুষকে হত্যা করা হয়নি। যুদ্ধের ইতিহাসে এ ঘটনাকে ‘লজ্জাজনক’ বলেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানিকে ফোন করে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন। আফগান প্রেসিডেন্ট জানান, যুদ্ধাপরাধের জন্য দায়ী অস্ট্রেলীয় সেনাদের বিচারের সম্মুখীন করা হবে বলে তাকে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ বাহিনীর এধরনের রক্তপিপাসু আচরণ পরিবর্তনের জন্যে ১৪৩টি সুপারিশ দিয়েছে তদন্ত কমিটি যা বাস্তবায়ন করা হবে।

আফগানিস্তানে ২৬ হাজার অস্ট্রেলয় সেনা সন্ত্রাস দমন অভিযানে যায় এবং তাদের ৪১ জন মারা যায়। দেশটিতে এখনো ৮০ জন সামরিক ব্যক্তি রয়ে গেছে যারা আফগানিস্তানের সেনাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন।