জাহাঙ্গীরকে অভিনন্দন জানিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, মেয়র হিসেবে পুন:রায় দেখতে চায় পৌরবাসী

60

নড়াইল কণ্ঠ : পৌরসভার মেয়র হিসেবে পাঁচ বছর মেয়াদকাল সফলভাবে দায়িত্ব পালন করায় মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাসকে নড়াইল পৌরবাসী শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা করেছে।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় পৌরবাসীর আয়োজনে রূপগঞ্জ বাজার এলাকা থেকে প্রায় ৫ হাজার পৌরবাসীর অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।

এসময় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় থাকা পৌরবাসী আসন্ন নড়াইল পৌর নির্বাচনে জাহাঙ্গীর বিশ্বাসকে নৌকা প্রতিকে মনোনয়নের জন্য দাবী করেন এবং মেয়র হিসাবে জাহাঙ্গীর বিশ্বাসকে পুন:রায় দেখতে চান বলে শ্লোগান দিতে থাকে।

পরে বিশাল এই বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি পৌর এলাকার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রূপগঞ্জ বাজার এলাকায় এসে শেষ হয়।

শোভাযাত্রা শেষে পথসভায় পৌরবাসীর আন্তরিক সহযোগিতায় ৫ বছর মেয়াদকাল সফলভাবে দায়িত্ব পালন করায় পৌরবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে বক্তব্য রাখেন মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস।

এ সময় তিনি পৌবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, পৌরবাসী আমাকে পৌর মেয়র হিসেবে পুন:রায় নির্বাচিত করলে আমাদের হীরের টুকরা জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্যাপ্টেন, নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার সার্বিক প্রচেষ্টায় নড়াইল পৌরসভাকে একটি অত্যাধুনিক মডেল পৌরসভা উপহার দিবো ইনশাল্লাহ।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে ৩০ ডিসেম্বর নড়াইল পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে নড়াইল পৌরসভায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর বিশ্বাস নৌকা প্রতীকে ১১ হাজার ৪৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি’র ধানের শীষে জুলফিক্কার আলী ৬ হাজার ৩৭১ ভোট পান। আ’লীগের বিদ্রোহী গ্রুপের স্বতন্ত্রপার্থী তৎকালিন সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস নারকেল গাছ প্রতিকে ১ হাজার ৩৭৭ এবং জেলা বাস ও মিনিবাস পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতি যুব লীগ নেতা সরদার আলমগীর হোসেন আলম জগ প্রতিকে ২ হাজার ৬৩৪ ভোট পান।
এ সময় জাহাঙ্গীর বিশ্বাসের বিজয়ের সংবাদ পেয়ে ভোটকারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোটের দিন বিকাল ৩টার দিকে সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, সরদার আলমগীর হোসেন আলম, জাসদের সৈয়দ আরিফুল ইসলাম পান্থ নির্বাচন বর্জন করেন।

২০১৫ সালে নড়াইল পৌরসভায় মোট ভোট কেন্দ্র ছিল ১৪টি। মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ২৯ হাজার ৪৫০ জন। ঐ নির্বাচনে বৈধ ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ৪১৯ এবং ৭২.৭৩% ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।