বাংলাদেশ-ভারত বিমান চলাচল শুরু

22

ঢাকা, ২৮ অক্টোবর, ২০২০ (বাসস): কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস) প্রাদুর্ভাবের কারণে সাত মাসের বেশী সময় বন্ধ থাকার পর ‘এয়ার বাবল’ ব্যবস্থার আওতায় আজ থেকে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পুনরায় বিমান চলাচল শুরু হয়েছে।

গতকাল (২৮ অক্টোবর) সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর (এইচএসআইএ) থেকে কোলকাতার উদ্দেশে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের নিয়মিত একটি বাণিজ্যিক ফ্লাইট উড্ডয়নের মধ্য দিয়ে ফের দু’দেশের মধ্যে বিমান চলাচল শুরু হল।

এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কে দোরাইস্বামী, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান এবং ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ক্যাপ্টেন মেসবাহ্ উদ্দিন আহমেদ কোলকাতাগামী যাত্রীদের বিদায় জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স গতকাল (২৮ অক্টোবর) সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা ফ্লাইটটিও পুনরায় চালু করেছে। জাতীয় পতাকাবাহী বিমান আজ থেকে নয়াদিল্লীগামী ফ্লাইট যাত্রার মধ্য দিয়ে ভারতে যাত্রী পরিবহন পুনরায় শুরু করবে।
এর আগে এয়ারলাইন্সের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দিল্লী রুটে চলাচল ছাড়াও, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আগামী ১ ও ১৫ নভেম্বর থেকে যথাক্রমে কোলকাতা ও চেন্নাইয়ে তাদের ফ্লাইট পুনরায় চালু করবে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স সোমবার ছাড়া সপ্তাহে ছয় দিন কোলকাতায় এবং চেন্নাইয়ে সপ্তাহে চারদিন সোমবার, বুধবার, শুক্রবার ও শনিবার ফ্লাইট পরিচালনা করবে।
স্থানীয় আরেকটি বিমান পরিবহন নভোএয়ার তাদের কোলকাতা ফ্লাইট পুনরায় চালু করার প্রস্তুতি নিয়েছে, তবে এখনো তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি।
এই এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় শুধু বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যেই ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। কোন তৃতীয় দেশকে এর সঙ্গে যুক্ত করা হবে না। কোন ট্রানজিট যাত্রী বহন করা হবে না।
ভারত ইতোমধ্যে ফ্রান্স, জার্মানী, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মালদ্বীপের মতো কয়েকটি দেশের সাথে এ ধরনের এয়ার বাবল চুক্তি করেছে। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এটি হচ্ছে এধরণের প্রথম চুক্তি।
এয়ার বাবল ব্যবস্থা অনুযায়ী, বাংলাদেশী এয়ারলাইন্স-বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এবং নভো এয়ার সপ্তাহে ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। অন্যদিকে, ভারতীয় পরিবহন এয়ার ইন্ডিয়া, ভিস্টারা, ইন্ডিগো, স্পাইসজেট এবং গোএয়ার সপ্তাহে সম সংখ্যক ফ্লাইট পরিচালনা করবে।
ভারতীয় পাঁচটি এয়ারলাইন্স দিল্লী-ঢাকা-দিল্লী, কোলকাতা-ঢাকা-কোলকাতা, চেন্নাই-ঢাকা-চেন্নাই এবং মুম্বাই-ঢাকা-মুম্বাই রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করবে।
ভারতীয় হাইকমিশন গত ৯ অক্টোবর বাংলাদেশী নাগরিকদের জন্য অনলাইনে ভিসা আবেদন সেবা পুনরায় শুরুর ঘোষণা দিয়েছে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এখন থেকে চিকিৎসা, ব্যবসা, চাকরী, সাংবাদিকতা, কূটনীতি, ব্যক্তিগত, কর্মকর্তা, জাতিসংঘ কর্মকর্তা ও জাতিসংঘ কূটনৈতিক এই নয়টি ক্যাটাগরিতে ভারতীয় ভিসা প্রদান করা হবে।

তথ্য সূত্র: (বাসস)