কালিয়ায় আ’লীগের দু’গ্রুপের পাল্টাপাল্টি হামলা, আহত ২

34


নড়াইলের কালিয়ার কলাবাড়িয়া গ্রামে গত দু’দিনে আ’লীগের বিবদমান দু’টি গ্রুপের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলায় দু’জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলার নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া গ্রামসহ তিন গ্রামে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহূর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রূপ নিতে পারে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার কলাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগ নেতা মাহামুদুল হাসান কায়েসের সমর্থক সবর ফকির-আবেদ শেখ গ্রুপ এবং একই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কাইউম-হাসনাত গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২৬ মে রাতে প্রতিপক্ষের হাতে দলনেতা কাইউম শিকদার নিহত হয়। তার আগে গত বছর দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সবর ফকির-আবেদ শেখ গ্রুপের আবেদের ভাই কটাই শেখ খুন হয়। চলমান স্থানীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে নিহত কাইউমের ভাই তুহীন শিকদারসহ ৫/৬ জন কাইউম হত্যা মামলার আসামী কলাবাড়িয়া গ্রামের মৃত শুকুর শেখের ছেলে চুন্নু শেখকে (৪৫) কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করলে দু’গ্রুপের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তারই জের ধরে শনিবার সকাল ১০টার দিকে হাসনাত গ্রুপের সমর্থক ও কটাই হত্যা মামলার আসামী একই গ্রামের সিরাজ শেখের ছেলে কামরুল শেখকে (৫০) পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই তিন গ্রামজুড়ে আতংক ও চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
এ বিষয় নড়াগাতি থানর ওসি রোকসানা খাতুন বলেন,‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এখনও কেউ অভিযোগ করেনি।’