নড়াইলে জমিজমা নিয়ে দু’এমপির বিরোধ

107

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের লোহাগড়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে নড়াইল-২ আসনের বর্তমান ও সাবেক দুই এমপি’র সমর্থিত লোকজনদের মধ্যে দেশিয় অস্ত্র নিয়ে মিছিল সহকারে মহড়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পুলিশের হস্তক্ষেপে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে নাই। এদিকে, সম্ভাব্য সংঘাত ও সহিংসতা এড়াতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

NK_Feb_2016_208পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া পৌরসভার কচুবাড়িয়া মৌজায় নড়াইল-২, আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এসকে আবু বাকের বিগত ২০১১ সালে .৯৬ শতক জমি ক্রয় করেন। এর মধ্যে মাত্র এক শতক জমি নিয়ে নড়াইল-২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য শেখ হাফিজুর রহমানের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিশ-বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই এক শতক জমির মালিকানা দাবি করে সাবেক সংসদ সদস্য এসকে আবু বাকের। এ নিয়ে গত বছরের ২৩ ডিসেম্বর আদালতে একটি মামলাও দায়ের করেন সাবেক এমপি। বিরোধপূর্ণ জমি সম্পর্কে আদালত উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট প্রতিবেদন চায় এবং ওই জমিতে স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখার জন্য ১৪৪ ধারা জারি করে।

নড়াইল-২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য শেখ হাফিজুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ‘নড়াইল-২ আসনের সাবেক এমপি এসকে আবু বাকেরসহ তার সমর্থিত লোকজন রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে আদালতের আদেশ অমান্য করে ওই জমি দখল করার চেষ্টা করেন এবং তারা স্থানীয় শ্রমিকলীগ অফিসে অবস্থান নেয়’। এ খবর পেয়ে বর্তমান এমপি’র লোকজন রামপুরস্থ ৮নং শ্রমিকলীগ অফিসের সামনে জড়ো হয়। উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ও ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মোজাম খান বলেন, ‘বর্তমান এমপি’র ভাই শেখ মফিজুর রহমানের নেতৃত্বে উচ্ছৃঙ্খল লোকজন লাঠি-সোঠা নিয়ে শ্রমিকলীগ অফিসের সামনে এসে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকলীগের নেতা-কর্মীরা লক্ষ্মীপাশা খেয়াঘাট এলাকা থেকে লাঠি-সোঠা, রাম দা, ছ্যান দা নিয়ে একটি মিছিল বের করে। মিছিল থেকে বর্তমান এমপি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন কুরুচি পূর্ণ শ্লোগান দেওয়া হয়। মিছিলটি উপজেলা পরিষদের সামনে পৌঁছালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা ও লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা নেতৃত্বে একদল পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে করে তাদের শান্ত করেন। শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য দুপুরে উপজেলা আ’লীগের উদ্যোগে পৌর আ’লীগের কার্যালয়ে উভয় পক্ষের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং সোমবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) এ বিষয়ে মিমাংশার জন্য সভা আহবান করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, সম্ভাব্য সহিংসতা এড়াতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।