হোমওয়ার্ক না করায় শিশুকে সংশোধানাগারে পাঠানো হয়েছে

66

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : আমেরিকার মিশিগানের বাসিন্দা ১৫ বছর বয়সী এক কৃষ্ঞাঙ্গ শিশুকে সংশোধানাগারে পাঠানো হয়েছে। মেয়েটির বিরুদ্ধে অভিযোগ সে তার অনলাইন স্কুলের কাজ শেষ করেন, ফলে স্কুল কতৃপক্ষ থেকে তাকে সংশোধানাগারে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ডেট্রয়েট নিউজের খবরে বলা হয়, গ্রেসের বিচারটি তিন ঘন্টার জন্য পরিচালিত হয়। সেখানে বিচারক গ্রেসকে তার ডিটেন্শন কালের মেয়াদ সম্পন্ন করতে বলেন। বিচারক বলেন, আলাদা থাকাই আপনাদের জন্য মঙ্গল।

ওকল্যেন্ড কান্ট্রি জর্জ মেরি এলেন ব্রেন্নান বলেন, “গ্রেস সংশোনাধাগারে থাকায় সে উপকৃত হচ্ছে। সে এখনই তার মায়ের কাছে ফিরে যেতে প্রস্তুত না”। তিনি সেপ্টেম্বরে পর্যন্ত গ্রেসকে সংশোনাধাগারে রাখার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে তিনি গ্রেসকে উৎসাহ দেন। তারপর তিনি সেপ্টেম্বরে বিচারের আরেকটি তারিখ দেন।

এ বিষয়ে এক বিচারক সোমবার এ ঘটনাটিকে কৃষ্ঞাঙ্গ শিশুদের ওপর বর্ণবাদের প্রতীকী আচরণ বলে মন্তব্য করেছেন। এ ঘটনায় প্রোপাবলিকা ইলিনয়েস গণমাধ্যমে “গ্রেস” নামে একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়। যেখানে পলিটিশিয়ান ও মানবাধিকার কমীরা তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অনেকে একে বর্ণবাদ আচরণ বলে ব্যাক্ষা করেন।