জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যানের ইন্তেকাল

28

নড়াইল কণ্ঠ : জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান অধ্যাপক মমতাজ বেগম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার ১৬ মে দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকার ভূতের গলির নিজ বাসভবনে তিনি মারা যান। তিনি কয়েক দিন ধরে বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

রবিবার (১৭ মে) বাদ জোহর ঢাকার ভূতের গলি জামে মসজিদে জানাজা শেষে মমতাজ বেগমকে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

তার মৃত্যুর খবর শুনে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল বলেন, ‘তিনি একসময় গণপরিষদের সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। মমতাজ বেগম একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন, তিনি নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করেছেন।

মুক্তিযুদ্ধের পর ১৯৭২ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত ও নির্যাতনের শিকার নারীদের পুনর্বাসনের জন্য ‘নারী পুনর্বাসন বোর্ড’ গঠিত হয়। মমতাজ বেগম সেই বোর্ডের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

জ্যেষ্ঠ আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমানের স্ত্রী মমতাজ বেগম। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

মমতাজ বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

মমতাজ বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন কিংবদন্তি অধিনায়ক (অব:) নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। তিনি তাঁর মোকবার্তায় জানান, প্রয়াত অধ্যাপক মমতাজ বেগম অ্যাডভোকেট নড়াইল জেলার কৃতি সন্তান, দেশবরেণ্য আইনজীবী এ্যাড. সৈয়দ রেজাউর রহমানের সহধর্মিণী। মহীয়সী নারী অধ্যাপক মমতাজ বেগম অ্যাডভোকেটের মৃত্যুতে আমি গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করছি। আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

অধ্যাপক মমতাজ বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তার। শোকবার্তায় তিনি বলেন, অধ্যাপক মমতাজ বেগম জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করে গেছেন।