করোনার মধ্যেই ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা

61

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : মার্চ ও এপ্রিল মাসকে দেশে বৈরী আবহাওয়ার সময় বলা হয়ে থাকে। কিন্তু চলতি বছর এই সময়ে বেশ কয়েকবার কালবৈশাখীর দেখা দিলেও বড় ধরনের কোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয় সৃষ্টি হয়নি। তবে শিগগিরই বড় ধরনের ঘূর্ণিঝড় হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এটি আগামীকাল শুক্রবারের মধ্যে নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। তারপরই সেখান থেকে ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হবে। তবে এটি কোথায় আঘাত হানতে পারে, সে ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, লঘুচাপটি আগামীকাল শুক্রবার নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। সেখান থেকে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়ার পর তা কোন উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানবে, সে ব্যাপারে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার পর বুঝা যাবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাগরের যে স্থানে লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে, সেখান থেকে এটি শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে বলে মনে হচ্ছে। নিম্নচাপের সৃষ্টি হলে বাতাসের তীব্রতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রচণ্ড রকমের বৃষ্টি ও সাগর উত্তাল হয়ে উঠতে পারে। নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার পর বঙ্গোপসাগর থেকে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে গিয়ে দিক পরিবর্তন করতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন আন্দামান সাগরে লঘুচাপটির সৃষ্টি হয়েছে। এটির বিশাল অংশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।