‘করোনার কারণে বিশ্বের অর্ধেক কর্মক্ষম জনগোষ্ঠী জীবিকা হারানোর ঝুঁকিতে’ -আইএলও

83

নড়াইল কণ্ঠ : বৈশ্বিক মহামারি (কোভিড-১৯)করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউন দেয়ার কারণে গৃহবন্দি হয়ে আছেন বিশ্বের অধিকাংশ দেশের মানুষ। এর ফলে পৃথিবীর মোট কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর প্রায় অর্ধেক মানুষ জীবিকা হারানোর ঝুঁকিতে আছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও। বুধবার (২৯ এপ্রিল) আইএলও’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০২০ সালের শুরুতেই মানুষের কর্মঘণ্টা কমে গেছে। সংস্থা থেকে প্রাথমিকভাবে যে হিসাব করা হয়েছিল তা অতিক্রম হয়েছে বহু আগেই। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার শুরুর দিকে বিশ্বব্যাপী সাড়ে ১০ শতাংশ কর্মঘণ্টা হ্রাসের আশঙ্কা করা হয়েছিল। এই হিসাব অনুযায়ী প্রতি সপ্তাহে ৪৮ কর্মঘণ্টা কমে গেছে। ফলে বিশ্বব্যাপী ৩০ কোটি পূর্ণকালীন কর্মসংস্থান হারিয়ে গেছে। সংস্থা থেকে অনুমান করা হয়েছিল, ১৯ কোটি পূর্ণকালীন কর্মসংস্থান হারিয়ে যাবে।

আশঙ্কা করা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র এই বছর ১২ দশমিক ৪ শতাংশ কর্মঘণ্টা হারাবে। ইউরোপ ও এশিয়াতে হারাবে ১১ দশমিক ৮ শতাংশ কর্মঘণ্টা।

মহামারি ঠেকাতে দেশগুলোতে দেয়া হয়েছে লকডাউন। এর কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের ফলে প্রায় ১৬০ কোটি শ্রমিকের জীবিকা নির্বাহ ঝুঁকিতে পড়েছে। ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার আগেই বিশ্বব্যাপী শ্রমিকদের আয় কমে যেতে দেখা গেছে।

শ্রমিকদের আয় সবচেয়ে বেশি কমেছে আফ্রিকা মহাদেশে ৮১ শতাংশ। যুক্তরাষ্ট্র, এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে কমেছে ২১ শতাংশ এবং ইউরোপে কমেছে ৭০ শতাংশ। গড় পরতায় এই হিসাব দাঁড়ায় ৬০ শতাংশে।