১৮ দিনেই বন্ধুত্বে’র সম্পর্ক ছিন্ন করলো হোয়াইট হাউস

70

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বন্ধুত্বের কথা সবারই জানা। সেই বন্ধুত্বের খাতিরেই সম্প্রতি করোনা মোকাবেলায় ভারতের কাছে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ চেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। বন্ধুত্ব রক্ষায় ভারতও সে আবদারে না করেনি।

এরপরই নরেন্দ্র মোদি, ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, দেশটির প্রধানমন্ত্রীর অফিস এবং ওয়াশিংটনে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসকে টুইটারে ফলো করা শুরু করে হোয়াইট হাউস। সবাই ধরে নিয়েছিল বন্ধুত্বের সম্পর্কটা যেন আরো গাঢ় হলো। কিন্তু সপ্তাহ দুই যেতে না যেতেই ফের মোদিকে আনফলো করে দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প!

বিষয়টি নিয়ে কূটনীতিকরা বলছেন, হোয়াইট হাউস সাধারণত অন্য কোনো দেশের রাষ্ট্র প্রধানকে টুইটারে ফলো করে না। তাই শুধু মোদিকে ফলো করায় মার্কিনিদের কাছেই তা বিসদৃশ লেগেছে। তাছাড়া এ নিয়ে অন্য দেশের কাছে ভুল বার্তাও যেতে পারে। সেজন্যই আনফলো করে দেওয়া হয়েছে বলে মনে করছেন তারা।

উল্লেখ্য, টুইটারে হোয়াইট হাউসের ফলোয়ার সংখ্যা দুই কোটি ২০ লক্ষের বেশি। তবে তারা সাধারণত অন্য দেশের রাষ্ট্রপ্রধানকে ফলো করে না। তবে গত ১০ এপ্রিল থেকে নরেন্দ্র মোদিকে ফলো করতে শুরু করে। কিন্তু ১৮ দিনেই সে ‘বন্ধুত্বে’র সম্পর্ক ছিন্ন করলো হোয়াইট হাউস।