ভারতসহ ১৪ দেশকে কালো তালিকাভুক্ত করলো ইউএসসিআইআরএফ

64

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ইউনাইটেড স্টেটস কমিশন অন ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম (ইউএসসিআইআরএফ) বলছে, ভারতে ধর্মীয় স্বাধীনতা বিপন্ন হয়ে গেছে। এ কারণে দেশটিকে কার্যত কালো তালিকাভুক্ত করেছে সংস্থাটি। তাদের এক রিপোর্টে ভারতের সাম্প্রতিক সংখ্যালঘুবিরোধী কর্মকাণ্ডের চিত্র উঠে আসায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইউএসসিআইআরএফ জানায়, ভারতকে তারা কান্ট্রিজ অফ পারটিকুলার কনসার্ন অর্থাৎ যেসব দেশে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক সে বিভাগে ফেলেছে। মার্কিন প্রশাসনকেও এ বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে, যাতে করে তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়। অর্থাৎ সংস্থাটি পক্ষ থেকে ভারতের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বলা হচ্ছে। এতে করে ভারতে ধর্ম বৈষম্য কমে যেতে পারে।

তবে শুধু ভারতই নয়, ইউএসসিআইআরএফের কালো তালিকায় রয়েছে মোট ১৪টি দেশের নাম। এতে ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন, ইরান, নাইজেরিয়া, সৌদি আরব, রাশিয়া, সিরিয়া, ভিয়েতনামের মতো দেশের নামও আছে।

ভারতের প্রসঙ্গে সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়, ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধন নামে একটি আইন পাশ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সারাদেশে নাগরিকপঞ্জি করার ঘোষণা দিয়েছেন। এর প্রভাব লক্ষ করা গেছে আসামে। ভারত সরকারের এমন পদক্ষেপে সেখানকার অনেকে নাগরিকত্ব হারাবেন।

একই চিত্র দেশটির অন্যান্য স্থানেও দেখার সম্ভাবনা খুব বেশি। তাছাড়া অভিযোগ আছে, এই আইন শুধু অ-মুসলিমদের জন্য। যার কারণে বিপদে আছে সেখানকার মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ।

তবে ইউএসসিআইআরএফের এই রিপোর্ট প্রত্যাখান করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, রিপোর্টটি সম্পূর্ণ একপেশে। এর আগেও তারা ভারতের বিপক্ষে এই কাজ করেছে। এবার তারা মিথ্যার যে বর্ণনা দিয়েছে, তা অন্য স্তরে চলে গেছে।