ডব্লিউএইচও’র তহবিল বন্ধ, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তদন্ত

49

করোনাভাইরাস ইস্যুতে চীনের পক্ষ নেয়ার অভিযোগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) তহবিল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে বিরোধী দল ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টিটিভস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটি। গতকাল সোমবার (২৭ এপ্রিল) দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বরাবর এ সম্পর্কিত একটি চিঠি দেয়া হয়েছে।

চিঠিটি পাঠিয়েছেন ডেমোক্র্যাটিক রিপ্রেজেন্টিটিভ ও কমিটির চেয়ারম্যান এলিয়ট এনজেল। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তথ্য দেওয়ার জন্য এক সপ্তাহের সময় দেওয়া হয়েছে পম্পেওকে।

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করলে পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও। এর মাসখানেক পর এক টুইটে ট্রাম্প বলেন, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ন্ত্রণেই আছে। পরে সেখানে অবস্থার অবনতি হতে শুরু করলে সে অবস্থান থেকে সরে আসেন তিনি। উল্টো তাদের আগে থেকে সতর্ক না করার জন্য ডব্লিউএইচওকে দোষারোপ করেন ট্রাম্প। এক পর্যায়ে সংস্থাটিতে তহবিল বন্ধের নির্দেশ দেন তিনি।

মাইক পম্পেওকে দেয়া চিঠিতে এলিয়ট এনজেল জানান, জাতিসংঘের অঙ্গ সংগঠনগুলোর অনেক খুঁত আছে। তবে ডব্লিউএইচও’র তহবিল বন্ধ করার পক্ষপাতী নন তিনি। সংস্থাটির সংস্কার প্রয়োজন আছে বলে তিনি মনে করেন। এলিয়টের মতে, বৈশ্বিক এই মহামারি পরিস্থিতির মধ্যে ডব্লিউএইচও’র তহবিল বন্ধ করে দেয়া ঠিক হবে না।

আগামী ৪ মে বিকাল ৫টার মধ্যে ডব্লিউএইচও’র তহবিল বন্ধ করে দেওয়া সংক্রান্ত নথি ও অন্য তথ্যগুলো পেশ করার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছেন এলিয়ট। যদি তা না করা হয়, তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দেন এ ডেমোক্র্যাট।