সুস্থ হলেও করোনার জীবাণু চোখে থাকতে পারে

43

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : সুস্থ হলেও চোখেও থাকতে পারে করোনাভাইরাস, ছড়াতে পারে সংক্রমণ। চিকিৎসকরা দাবি করছেন সুস্থও হয়ে ওঠার পরেও আক্রান্তের চোখে কোভিড-১৯’র জীবাণু লুকিয়ে থাকতে।

চোখে করোনার জীবাণু থাকলে দেখা দিতে পারে কংজাইটিভাইটিস। ইতালিতে অনলাইনে প্রকাশিত এক মেডিকেল জার্নালে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

ওই জার্নালে বলা হয়, ইতালির প্রথম করোনা রোগীর (৬৫) চোখে বাসা বেঁধেছিল এই জীবাণু। তিনি একজন নারী। নিজ দেশে ফিরেছিলেন চীনের উহান প্রদেশ থেকে। ফেরার পাঁচদিনের মাথায় তার দেহে একাধিক উপসর্গ দেখা দেয়।

ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, প্রথমদিকে শুকনো কাশি, গলা ব্যথা, নাকে অসম্ভব জ্বালা দেখা দেয় তার। আক্রান্তের চোখে কংজাইটিভাইটিসের উপসর্গও ধরা পড়ে। পরে নমুনা পরীক্ষায় জানা যায়, তিনি করোনা আক্রান্ত।

ওই নারী যে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সেখানকার চিকিৎসকরা জানান, আক্রান্ত হওয়ার তিনদিনের মাথায় রোগীর চোখ থেকে সোয়্যাবের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। নমুনায় করোনার জীবাণুর আরএনএ পাওয়া যায়। তার চোখ দিয়ে একটানা পানি পড়ত। তিনি সুস্থ হয়ে ওঠার ২৭ দিন পরেও চোখের তরলে করোনার জীবাণুর উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছিল।

জার্নালে ইতালিয় গবেষকরা বলেন, কোনো রোগী সুস্থ হয়ে উঠার ২১ দিন পরেও তার চোখে করোনার জীবাণু থাকতে পারে। সেখান থেকে পুরো শরীরে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। চোখের পানিতে ক্রমাগত বংশবিস্তার করতে পারে এই করোনা জীবাণু। নাক থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হলে, তাতে উপস্থিতি নাও ধরা পড়তে পারে। তাই এই সময় ঘনঘন চোখ-নাক-মুখ স্পর্শ করতে নিষেধ করেছেন চিকিৎসকরা।