মাশরাফী চিকিৎসকদের জন্য ২’শ পিপিই হস্তান্তর করলেন

194

নড়াইল কণ্ঠ : বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নড়াইল জেলার মানুষের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে কিংবদন্তি অধিনায়ক নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্য সহকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ২’শ সেট পার্সোনাল প্রটেকশন ইক্যুইপমেন্ট (পিপিই) মাক্স, হ্যান্ডগ্লোব প্রদান করেছেন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) দুপুরে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার নড়াইলের বাসভবন থেকে তাঁর (মাশরাফী) পিতা বিশিষ্ট সমাজসেবক গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন নড়াইলের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল মোমেন এর নিকট এ সব সরামঞ্জামাদি হস্তান্তর করেন। এসব সরমঞ্জামাদি নড়াইল সদর, লোহাগড়া, কালিয়া সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে সরবরাহের জন্য দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এসময় গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন জানান, এ সহযোগিতা আমাদের এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা তাঁর নিজস্ব অর্থায়নে চিকিৎসকদের সুরক্ষা ও নিরাপদ চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য সরবরাহ করেছেন।

এ সময় তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের মাঠপর্যায় পেশাগত কাজের সুবিধার কথা বিবেচনা করে কিছুসংখ্যক পিপিই, হ্যান্ডগ্লোব, স্যানিটাইজ সামগ্রী প্রদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নড়াইল সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আব্দুস শুকুর, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আ,ফ,ম মশিউর রহমান, মাশরাফীর ছোট ভাই সিজার, পরিবারের ঘনিষ্টজন রাসেল বিল্লাহ প্রমুখ।

এ সময় মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার পিতা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন বলেন, ‘নড়াইলের জন্য আমাদের এমপি ইতিমধ্যে নড়াইলের গরীব মানুষ যাতে খাবার পায় সে জন্য তিনি খাবার ব্যবস্থা করেছেন। এর পাশাপাশি আজকে যারা এই করোনা নিয়ে কাজ করেন, তারা ঝুঁকির মধ্যে ছিলো। তাদের কাজের সুবিধার্থে এই পিপি সরবরাবহ করেছেন আমাদের এমপি। তিনি আরো জানান, প্রথম কোটায় ২’শ পিপি দিয়েছেন, এর পরে আরো ২’শ পাঠাবেন। প্রয়োজনে ডাক্তারদের চাহিদা অনুযায়ি যত লাগবে সে পরিমান সরবরাহ করা হবে।’

নড়াইল সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আ, ফ, ম মশিউর রহমান বাবু জানান, ইতিমধ্যে আমরা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে পিপিপি সংগ্রহ করেছি। যদিও নড়াইল এখনও ভালো আছে। হঠাৎ বড়ধরনের কোন জটিলতা তৈরী হলে এ সংখ্যা পিপি দিয়ে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়তো আমাদের পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়তে পারে। সে কারণে আমাদের এমপি মহোদয় যে সহযোগিতা দিলেন নড়াইলের মানুষের কথা ভেবে এতে আমরা যারা চিকিৎসা সেবা কাজে নিয়োজিত রয়েছি তাদের জন্য এটা বড়ধরনের সুখবর। আশা করি আমরা করোন প্রতিরোধ করতে সফল হবো।