চালিঘাট-গোন্ডপ গ্রামবাসীর বিরোধ নিরসন করলেন নড়াইলের এসপি

174

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গন্ডব ও চালিঘাট গ্রামের দীর্ঘদিনের দ্বন্দ-সংঘাত অবশেষে মীমাংসার মাধ্যমে রণে ভঙ্গ দিলেন গন্ডব-চালিঘাটবাসী। বিবাদমান দু’টি পক্ষ আর দ্বন্দ-সংঘাত করবে না মর্মে পুলিশ ও জনতার সামনে অঙ্গীকার করেছেন।
এ উপলক্ষে বুধবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩টায় নড়াইলের পুলিশ সুপারের উদ্যোগে উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের চালিঘাট নির্মাণাধীন সেতুর ওপর এক সম্প্রীতির বন্ধনের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে এসআই মিল্টন কুমার দেবদাসের পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ জসীম উদ্দিন পিপিএম (বার), বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফি বিন মোর্তুজার পিতা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, লোহাগড়া উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মুন্সি আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মসিয়ুর রহমান, সহ-সভাপতি ফয়জুল হক রোম, জেলা পরিষদ কাউন্সিলর শেখ সুলতান মাহমুদ বিপ¬ব, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান, ইউপি সদস্য ছলেমান শেখ, মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা ও গন্ডব গ্রামের মিরাজ মোল্যা।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নোয়াগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম কালু, জয়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আখতার হোসেন, লোহাগড়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আমানুল্ল¬াহ আল বারী, লাহুড়িয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা (ডিএসবি) এসআই নজরুল ইসলাম, কনস্টেবল নজরুল ইসলাম, জিয়াউল হক, ডিবি পুলিশের এসআই তাহিদুর রহমান, এএসআই সোহেল, কনস্টেবল নারায়ন, কাশিপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি রেজাউল ইসলাম, আ’লীগ মেতা আজিজুর রহমান আর্জু, কাশিপুর ইউপি সদস্য আব্দুল অহেদ শেখ প্রমুখ।
সভা শেষে প্রধান অতিথি মোহাম্মাদ জসীম উদ্দিন পিপিএম (বার) এর উপস্থিতিতে বিবাদমান দু’পক্ষ একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে আলিঙ্গন ও করমর্দন করেন। এ সময় দু’পক্ষের নেতারা গ্রামে আর দ্বন্ধ-সংঘাত করবেন না-মর্মে জনতার সামনে অঙ্গীকার করেন। আয়োজিত সভায় গন্ডব-চালিঘাট ছাড়াও আশ-পাশের গ্রামের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
এ দিকে, উক্ত সভা শেষে বাড়ি ফেরার পথে সেতুর উত্তর পাশের সংযোগ সড়কের অস্থায়ী সিড়ি ভেঙ্গে গন্ডব গ্রামের রবিউল ইসলাম, চালিঘাটের হাসান মোল্যা ও আড়পাড়ার বোরহান মোল্যাসহ অন্তত ৮জন আহত হয়। গুরুত্বর আহত বোরহান মোল্যাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং রবিউল ও হাসানকে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।