১৭২ বছর পর বিরল সূর্যগ্রহণ শুরু

12

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : অগ্নিবলয়ের মতো বিরল সূর্যগ্রহণ বাংলাদেশ সময় আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হয়েছে, চলবে দুপুর ২টা ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড পর্যন্ত। আকাশে দীর্ঘ এ সূর্যগ্রহণ ৯টা ৪ মিনিট থেকে পর্যবেক্ষণ করা যাচ্ছে।
মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানান, ১৭২ বছর পর আড়াই থেকে তিন ঘণ্টাব্যাপী মহাজাগতিক এই দৃশ্য পৃথিবীবাসী দেখতে পাচ্ছে। এতে সূর্যের ৯০ শতাংশের বেশি ঢেকে ফেলবে চাঁদ। পুরো এই প্রক্রিয়াটা খালি চোখেই দেখা যাচ্ছে। এমন সূর্যগ্রহণের সময় চারপাশে আগুনের বলয় তৈরি হয়, যাকে ‘রিং অব ফায়ার’ বলা হয়।
বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টায় আরব সাগরের ওমানের রাস মাদ্রাকাহ’র দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে সূর্যগ্রহণটি শুরু হয়। কেন্দ্রীয়গ্রহণ শুরু হয় ৯টা ৩৬ মিনিট ৬ সেকেন্ডে বাহরাইনের উরায়ারাহ’র পশ্চিম দিকে।
তবে সর্বোচ্চ সূর্যগ্রহণ শুরু হবে মালাক্কা প্রণালিতে রূপাথ দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব দিকে বেলা ১১টা ১৭ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে আর শেষ হবে ফিলিপাইন সাগরের গুয়াম দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে দুপুর ২টা ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে।
আবহাওয়াবিদরা জানান, বিরল এ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ সকাল ৯টা ৪ মিনিট ১৮ সেকেন্ড থেকে ঢাকার আকাশে দেখা যাচ্ছে। আকাশ পরিষ্কার থাকলে দুপুর ১২টা ৬ মিনিট ৪২ সেকেন্ড পর্যন্ত দেখা যাবে। এর কাছাকাছি সময়ে দেশের অন্যান্য এলাকার থেকেও এটি দেখা যাবে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের ছাদে দুইটি করোনাডো সোলার টেলিস্কোপ দিয়ে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখার ব্যবস্থা করেছে কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি সূর্যগ্রহণের বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের আলোচনার আয়োজন করা হয়েছে।
সূর্যের বেশিরভাগ অংশ চাঁদের আড়ালে ঢাকা পড়লেই সূর্যটাকে অগ্নিবলয়ের মতো দেখা যাচ্ছে। খালি চোখে দেখতে না পেলে অনলাইনেও দেখা যাবে। Slooh.com ওয়েবসাইটে সূর্যগ্রহণটি লাইভ স্ট্রিম করা হচ্ছে।