কোটালীপাড়া পৌর কাউন্সিলর আক্তারুজ্জামানকে পদ থেকে অব্যহতি দিতে স্থানীয় সরকার সচিবকে হাইকোর্টের নির্দেশ

10

নড়াইল কণ্ঠ : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো: আক্তারুজ্জামানকে নৈতিকস্খলন জনিত কারনে তার পদ থেকে অব্যহতি দেয়ার জন্য স্থানীয় সরকার সচিবকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। গত ৪ নভেম্বর বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি এমডি মাহমুদ হাসান তালুকদার এ আদেশ দেন।
এছাড়া স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব, বিভাগীয় কমিশনার ঢাকা, জেলা প্রশাসক গোপালগঞ্জ ও উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার বিভাগ গোপালগঞ্জকে কাউন্সিলর পদ থেকে অব্যহতি দেয়ার জন্য আবেদন করার সত্বেয়ও কমিশনার আক্তারুজ্জামানের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়ার কারন জানতে চেয়ে ৪ সপ্তাহের মধ্যে উত্তর দিতে বলা হয়।
ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, গত ৯ ফেব্রুয়ারি জুয়ার আসর থেকে কাউন্সিলর মো: আক্তারুজ্জামানকে আটক করে পুলিশ। পরে ওই কাউন্সিলরকে আদালত হাজির করা হলে জুয়া আইনে তাকে ২দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ টাকা জরিমানা করে আদালত।
কোটালীপাড়া পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের ভোটার আলম সিকদারগং ফৌজদারী অপরাধে সাজার দায়ে কাউন্সিলর আক্তরুজ্জামানকে কাউন্সিলর পদ থেকে অব্যহতি প্রদানের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব, বিভাগীয় কমিশনার ঢাকা, জেলা প্রশাসক গোপালগঞ্জ ও উপ-পরিচালক গোপালগঞ্জে আবেদন করেন।
এদিকে আবেদনকারী কোন প্রতিকার না পেয়ে আক্তারুজ্জামানের কাউন্সিলর পদ অপসারন চেয়ে হাইকোর্টে রীট পিটিশন দায়ের করেন গত ৪ নভেম্বর শুনানীর পর আদালত উক্ত রায় প্রদান করে। আবেদনকারির পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খোন্দকার। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার মার ই যান খোন্দকার।
উল্লেখ, পৌরসভা আইন-২০০৯ আইনের ৩২(খ) ধারায় বলা আছে, নৈতিকস্খলন জনিত কারনে আদালত কর্তৃক দন্ডিত হলে মেয়র বা কাউন্সিলর পদ বাতিল যোগ্য।