গ্রামীণফোন দু’সপ্তাহ সময় পেয়েছে বিটিআরসি পাওনা পরিশোধের

21

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) পাওনা পরিশোধের বিষয়ে জানাতে টেলিকম কোম্পানি গ্রামীণফোনকে আরো দুই সপ্তাহ সময় দিয়েছেন সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগ। বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির একটি বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরসির পাওনা ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকার মধ্যে টেলিকম কোম্পানিটি ন্যূনতম কত টাকা দিতে পারবে সে বিষয়ে জানাতে বৃহস্পতিবার আদালতে শুনানির দিন ধার্য ছিল। শুনানির সময় গ্রামীণফোনের পক্ষে আইনজীবীরা সময় চাইলে আদালত তাদের ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত সময় দেন। পাশাপাশি ওইদিন পর্যন্ত বিটিআরসির পাওনা আদায়ের ওপর হাইকোর্টের অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে করা আবেদনের শুনানি মুলতবি ঘোষণা করেন আপিল বিভাগ।
আদালতে বিটিআরসির পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মাহবুবে আলম ও খন্দকার রেজা-ই-রাকিব এবং গ্রামীণফোনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
এর আগে গত ২৪ অক্টোবর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন একটি পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ গ্রামীণফোনের কাছে জানতে চায়, বিটিআরসির দাবি করা টাকার মধ্যে তারা ন্যূনতম কত টাকা দিতে পারবে। গ্রামীণফোনের আইনজীবীদের বৃহস্পতিবার তা আদালতে জানাতে আদেশ দেয়া হয়। সেই প্রেক্ষিতেই বৃহস্পতিবার শুনানিতে ফের দুই সপ্তাহ সময় পায় গ্রামীণফোন।