মাইকেল ভনের সাকিবের জন্য নেই কোন দয়া

12

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : সাকিবের নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশ ক্রিকেটের আকাশে মেঘের ঘনঘটা। তখন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন বলছেন, সাকিবের জন্য তার কোন দয়া নেই। ২ বছরের শাস্তিও নাকি যথেষ্ট নয়।
এক টুইট বার্তায় মাইকেল ভন বলেন, ‘সাকিবের জন্য কোনো দয়া নেই আমার। সত্যি কোনো দয়াই নেই। তার অপরাধের জন্য ২ বছর যথেষ্ট নয়, তাকে আরও লম্বা সময়ের জন্য নিষিদ্ধ করা উচিত ছিল।’
তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে খেলোয়াড়দের সবসময় জানানো হয়, তারা কি করতে পারবে, কি করতে পারবেনা। কাজেই ফিক্সিংয়ের মতো ইস্যুতে তাদের সবসময় সঠিক সময়ে রিপোর্ট করতে হবে।
সাকিব ইস্যুতে আইসিসি বলছে, বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ স্বীকার করেছেন। পাশাপাশি আইসিসির দুর্নীতি দমন ট্রাইব্যুনালের শুনানিতে দেয়া সব শাস্তিও মেনে নিয়েছেন সাকিব। বলা হচ্ছে, সাকিবের বিরুদ্ধে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞাই থাকবে তবে যদি নিষেধাজ্ঞার সময় শাস্তির সব বিধিবিধান মেনে চলেন তাহলে ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন সাকিব।
বলা হচ্ছে, মোট তিনবার ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব। প্রত্যেকবারই এই অলরাউন্ডার জুয়াড়িকে ফিরিয়ে দেন। তবে প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়টি তিনি আইসিসিকে জানাননি।
সাকিবের বিরুদ্ধে আনা তিন অভিযোগের মধ্যে রয়েছে- ২০১৮ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজ (বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে) চলাকালে দুইবার জুয়াড়িরা তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি বিষয়টি আইসিসিকে অবগত করেননি। একই বছরের ২৬ এপ্রিল আইপিএলে সান রাইজেস হায়দ্রাবাদ ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মধ্যকার ম্যাচেও জুয়াড়ি তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল, সে ব্যাপারেও আইসিসিকে অবগত করেনি সাকিব।
সন্ধ্যায় বিসিবিতে গণমাধ্যমকে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার বলেন, ‘আর একটা কথা বলতে চাই, অপনারা যেভাবে আমাকে এতোদিন সমর্থন করে এসেছেন, সমর্থকরা, আপনারা (সাংবাদিক), বিসিবি এবং সরকার সবাই। ভালো, খারাপ দুই সময়েই আপনারা আমার পাশে ছিলেন। আমি আশা করি এই সমর্থন আপনারা আমার প্রতি করে যাবেন। এটা যদি আমি পাই তাহলে খুব শিগগিরই আবার ক্রিকেটে ফিরতে পারব এবং আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরতে পারব। দেশের হয়ে দায়িত্ব পালন করতে পারব।’