নড়াইলে হত্যা মামলার আসামীর বাড়ি পোড়ানোর অভিযোগ, থানায় মামলা দায়ের

25

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের কামাল প্রতাপ গ্রামে একটি হত্যা মামলার আসামী মফিজার কাজীর বসতঘর পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নড়াইল সদর থানায় ১৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫জনকে আসামী করে মামলা হয়েছে।
ক্ষতিগ্রস্থ মফিজার কাজী জানান, গত শুক্রবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে তার বাড়ির উত্তরপোতার বসতঘরটি প্রতিপক্ষরা পূর্বশত্রুতার জের ধরে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে ঘরের মধ্যে থাকা আসবাবপত্রসহ সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
তিনি (মফিজার কাজী) অভিযোগ করে বলেন, ‘চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল রাতে শালিখা বাজারে পূর্বশ্রুতার জের ধরে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য ডাবলু শেখ নিহত হয়। ওই ঘটনায় নিহতের ভাই বাবুল শেখ বাদী হয়ে ৩১জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এই হত্যা মামলা দীর্ঘদিন জেল-হাজতে থাকার পর আমরা জামিনে মুক্তি পাই। কিন্তু বাদীপক্ষের লোকজনের ভয়ভীতির কারনে বাড়ি যেতে পারি না। সম্প্রতি পুলিশের সহযোগিতায় বাড়িতে যাই। কিন্তু বাদী বাবুল শেখ তার লোকজন নিয়ে গত ১৭ অক্টোবর আমার ভাই বাবু কাজীকে (৫৫) কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে। আমার একমাত্র বসতঘরটি পুড়িয়ে দিয়েছে। আমাদেরকে প্রতিপক্ষের লোকজন গ্রামে বাস করতে দিচ্ছে না। গত ছয়মাস ধরে অত্যাচার চালিয়ে আসছে।
এ ব্যাপারে নিহত ডাবলু শেখের ভাই মামলার বাদী বাবুল শেখ বলেন, ‘ আমি ঢাকায় আছি। কারও ঘর পোড়ানোর প্রশ্নই আসে না। তারা নিজেদের ঘর পুড়িয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে। আমার ভাই খুন হয়েছে। মামলা করেছি। আইনগতভাবে বিচার হবে। আমরা কোন আসামীদের ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি-ধামকি দেইনি। এসব অভিযোগ মিথ্যা।’
নড়াইল সদর থানার ওসি মোঃ ইলিয়াস হোসেন বলেন, বাশগ্রাম ইউনিয়নের কামালপ্রতাপ গ্রামের মফিজার কাজীর বসতঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগে থানায় একটি মামলা হয়েছে (মামলা নং-১৪, তাং-১৯/১০/১৯)। পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’