নড়াইল সদরে রাস্তা উন্নয়নে সাড়ে ৪ কোটি টাকার কাজ শুরু হতে যাচ্ছে

9

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইল সদর উপজেলায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ‘গ্রামীণ মাটির রাস্তাসমূহ টেকসই লক্ষ্যে হেরিং বোন বল্ড (এইচবিবি) করণ (২য় পর্যায়)’ প্রকল্পের আওতায় ৪ কোটি ৫১ লক্ষ ৯৯ হাজার টাকা ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় নড়াইল সদরে ৭টি প্যাকেজে মোট ১৬টি রাস্তার কাজ বাস্তবায়ন হবে। কাজটি বাস্তবায়ন করবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। স্থানীয়ভাবে প্রকল্পের কাজ টেন্ডার প্রক্রিয়া, ঠিকাদার নির্বাচন ও সরেজমিনে বাস্তবায়নে তদারকি করবে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা।

অফিস সূত্রে জানাগেছে, প্রকল্প পরিচালক কর্তৃক একই সংগে ৪৯২ টি উপজেলার অনুমোদিত এইচবিবি রাস্তা নির্মাণের জন্য বিগত ০৬-০৯-২০১৯ খ্রিঃ ও ০৭-০৯-২০১৯ খিঃ তারিখে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় দরপত্র আহবান করা হয়। বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক দরপত্র গ্রহণের শেষ দিন ছিলো ১৫ অক্টোবর মঙ্গলবার এবং দরপত্র দাখিল দিন ধার্য ছিলো ১৬ অক্টোবর দুপুর ১টা পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, প্রকল্পের অধীন নড়াইল জেলার সদর উপজেলায় ০৭ (সাত) টি টেকসই প্যাকেজের মধ্যে যে সকল রাস্তা বাস্তবায়ন হবে সেগুলো হলো-
নং ০১ প্যাকেজে মাইজপাড়া ইউনিয়নে ৩টি রাস্তা। আদমপুর পাকা রাস্তা হতে গুচ্ছগ্রাম অভিমুখী মাটির রাস্তা ও বলরামপুর শাহাজান মোল্যার বাড়ির নিকট বেড়িবাঁধ হতে নৃপেন মন্ডলের বাড়ী সংলগ্ন নদীর ঘাট পর্যন্ত এবং বলরামপুর স্কুল হতে গুচ্ছ গ্রামের শেষ মাথা পর্যন্ত ৭৪লক্ষ ২০ হাজার টাকায় ১৩৫০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০২ প্যাকেজে বিছালী ও আউড়িয়া ইউনিয়নে ২টি রাস্তা। আকপরপুর পাকা রাস্তা হতে ভোলানাতের বাড়ির পর্যন্ত (৭৫০ মিঃ) ( বিছলী-ইউপি), খ) আউড়িয়া দক্ষিন পাড়া জামে মসজিদ হয়ে চড়েরঘাট পর্যন্ত (৫০০ মিঃ) (আউড়িয়া-ইউপি) ৬৮লক্ষ ৫০ হাজার টাকায় ১২৫০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০৩ প্যাকেজে চন্ডিবরপুর ইউনিয়নে ১টি রাস্তা। ফেদী রাজ্জাক শেখের বাড়ী হতে ফেদী বাজার পর্যন্ত (১০০০ মিঃ) (চন্ডিবরপুর-ইউপি) ৫৪ লক্ষ ৮৩ হাজার টাকায় ১০০০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০৪ প্যাকেজে শিংগাশোলপুর ইউনিয়নে ২টি রাস্তা। নলদীরচর কাতেবর শেখের বাড়ির সামনের পাকা রাস্তা হয়ে রথিন বিশ্বাসের বাড়ি পর্যন্ত মাটির রাস্তা ও শোলপুর ঠাকুরবাড়ি নদীর ঘাট থেকে সাফায়েত মীরের বাড়ী পর্যন্ত ৪৯লক্ষ ২৮ হাজার টাকায় ৯০০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০৫ প্যাকেজে হবখালী ও শাহাবাদ ইউনিয়নে ২টি রাস্তা। ক) ভান্ডরীপাড়া শহিদ মেম্বরের বাড়ির পাকা হতে বিল অভিমুখী (৫০০ মিঃ) (হবখালী-ইউপি) (খ) চরবিলা পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদ সংলগ্ন তেমাথা হতে বিল অভিমুখী কার্পেটিং রাস্তা পর্যন্ত (৫০০ মিঃ) (শাহাবাদ-ইউপি) ৫৪ লক্ষ ৬০ হাজার টাকায় ১০০০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০৬ প্যাকেজে ভদ্রবিলা ও তুলারামপুর ইউনিয়নে ৪টি রাস্তা। ক) দিঘলীয়া দক্ষিনপাড়া পাকা রাস্তা হতে বিল অভিমুখী রাস্তা ভায়া বক্তার মোল্যার বাড়ী পর্যন্ত ও বাঘডাংঙ্গা আব্দুল হালিম মোল্লার বাড়ি থেকে পলাশের বাড়ী পযন্ত (৭০০ মিঃ) (ভদ্রবিলা-ইউপি) (খ) বেনাহাটি মুকুলের বাড়ী সংলগ্ন পাকা রাস্তা হতে প্রভাষের বাড়ি অভিমুখী ও বাঁশগ্রাম ইউপির কর্মচন্দ্রপুর ঈদগাহ হতে টুকু শিকদারের বাড়ী পর্যন্ত (৭০০ মিঃ) (তুলারামপুর-ইউপি) ৭৬ লক্ষ ৪৮ হাজার টাকায় ১৪০০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

নং ০৭ প্যাকেজে ভদ্রবিলা ও তুলারামপুর ইউনিয়নে ২টি রাস্তা। বালিয়াডাংগা গোপাল হাজরার বাড়ী হতে বনগ্রাম ব্রীজ পযন্ত রাস্তা ও মুলিয়া কোড়গ্রাম সুইজ গেট হতে ঠাকুর বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা এবং মুশুড়ী রবিন সরকারের বাড়ীর সামনে মন্দীর হতে অমল হাজরার বাড়ী অভিমুখে (১৩৫০ মিঃ) (মুলিয়া-ইউপি) ৭৪ লক্ষ ১০ হাজার টাকায় ১৩৫০ মিটার মাটির রাস্তায় এইচবিবিকরণ।

এদিকে একটি বিশেষ সূত্র থেকে জানাগেছে সরকারের সকল উন্নয়ন কার্যক্রম নড়াইলের সচেতন নাগরিক সরাসরি পর্যবেক্ষণ করছেন এবং আগামিতেও করবেন। যেহেতু মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা নড়াইল-২ আসনের এমপি হওয়ায় এমনটি আশাপোষণ করছেন নড়াইলের এই সচেতন মহল।