মাশরাফি বিন মোর্ত্তজাকে ‘প্রিন্স অফ হার্ট’ ঘোষণা

77

নড়াইল কণ্ঠ : তরুণ প্রজন্মের আইডল ধরা হয় যাকে, তিনি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। গত ১৮ বছর ধরে যার কথা দেশ-বিদেশের গণমাধ্যম কর্মীরা শুনেছে মন্ত্রমুগ্ধের মতো, আজ হয়েছে তার উল্টো। শুনিয়েছেন সারা বাংলাদেশ থেকে জড়ো হওয়া এসএসসি -২০০০, এইচএসসি-২০০২ ব্যাচের ছাত্র ছাত্রীদের। অনুষ্ঠানের আয়োজকগণ তাদের প্রিয় খেলোয়াড়, প্রিয় ব্যক্তিত্ব মাশরাফি বিন মুর্তজাকে ‘প্রিন্স অফ হার্ট’ ঘোষণা দেন। মাশরাফি বিন মুর্তজাও তাদের সকল ভালো কাজের সঙ্গে থাকার আহবান জানান।
শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিগগেস্ট ইভেন্ট আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এমপি।
সারাদেশের ২০০০ সালের এসএসসি ও ২০০২ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রায় ১১ হাজার সদস্যের সংগঠন এই বিগগেস্ট ইভেন্ট। যারা আজ সম্মিলিতভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।
যদিও মাশরাফি বিন মুর্তজা ১৯৯৯ এসএসসি ব্যাচের শিক্ষার্থী এবং তার সহধর্মিণী সুমনা হক সুমি ছিলেন ২০০০ সালের এসএসসি ব্যাচের শিক্ষার্থী।
যে জন্যই আসা এই অনুষ্ঠানে। এখানেও তার থেকে কিছু শোনার অনুরোধ ছিল উপস্থিত সবার। বক্তৃতাকালে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, আজকে এখানে আপনারা শুধু আমাকেই লিজেন্ড বলে সম্বোধন করেছেন- এই কথাটিতে আমার আপত্তি আছে, আমি লিজেন্ড হতে পেরেছি কিনা জানি না। তবে এখানে যারা উপস্থিত আছেন তাদের মধ্যে অনেকেই লিজেন্ড। যারা হয়তো ক্যামেরার সামনে আসেন না, যাদেরকে মানুষ কম চেনেন। কিন্তু তাদের অনেকেই অনেক লিজেন্ডারি কাজ করে যাচ্ছেন নীরবে-নিভৃতে।
বক্তৃতার এক পর্যায়ে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, আমরা সকলে একটি সুন্দর বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি। সেই সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দিন-রাত নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এখানে উপস্থিত আমরা সকলে কোনো না কোনো কাজের সাথে যুক্ত। তাই আসুন, আমরা আমাদের নিজেদের পরিবার ও সন্তানকে যেমন করে সময় দেই তেমনি করে যার যার কর্মস্থলে আন্তরিকতার সাথে কাজ করে আমাদের সেই সুন্দর বাংলাদেশ গঠনে কাজ করি। এক্ষেত্রে কে বড় পদে বা কে ছোট পদে কর্মরত এটা কোনো বিষয় না। দেশের জন্য কাজ করাটাই বড় কথা।
নড়াইল-২ আসনে সংসদ সদস্য মনোনয়নের পরেই নয়, তার আগে থেকেই মাশরাফি লড়ে যাচ্ছেন ধর্ষণ ও মাদকের বিরুদ্ধে। এখানে এসেও সবাইকে মনে করিয়ে দেন যে যার জায়গা থেকে ধর্ষণ ও মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা আইনজীবীদের অনুরোধ করেন, মাদক ও ধর্ষণের আসামিদের পক্ষে মামলায় না লড়বার।
এসময় তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন জন্মস্থান নড়াইলের কাজ করার সুযোগ দেওয়ার জন্য। ‘আমি চেষ্টা করছি আমার জায়গা থেকে নড়াইলের জন্য ভালো কিছু করার।’
এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা একজন জীবন্ত কিংবদন্তী, যার জন্য বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল হয়েছে। আজকের বাংলাদেশ ক্রিকেটের সফলতার নায়ক আমাদের মাশরাফি। মাশরাফিকে দেখে এদেশের তরুণ প্রজন্মের সকলে অনুপ্রাণিত হয়ে থাকে।