৬০ নারী ‘দি ইঞ্জিনিয়ার্স-রত্নগর্ভা মা’ সম্মাননা পেলেন

35

নড়াইল কণ্ঠ : ৬০ নারী ‘দি ইঞ্জিনিয়ার্স রত্নগর্ভা মা ২০১৯’ সম্মাননা পেলেন। প্রথমবারের মতো ইঞ্জিনিয়ার্স ইনিস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) ঢাকা কেন্দ্র এবং দি ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে প্রকৌশলীদের রত্নগর্ভা মায়েদের এ সম্মাননা দেওয়া হয়।
শনিবার (০৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর রমনায় আইইবি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে রত্নগর্ভা মায়েদের হাতে সম্মাননা পদক, ক্রেস্ট এবং সনদ তুলে দেন প্রধান অতিথি মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। এ সময় এই সম্মাননা পেয়ে অনেক মা-ই আনন্দে আপ্লুত হন।
রত্নগর্ভা মায়েরা হলেন- আয়েশা বেগম, নাজাতুন নেসা, রওশন আরা বেগম, ফাতেমা খানম, ছামিরুন নেসা, সামছুন্নাহার বেগম, জেবুন নেসা, জয়নব বেগম, মনোয়ারা বেগম, রাবেয়া খাতুন, আফরোজা বেগম, হাসিনা মজিদ, মেহেরুন নেছা খান, রওশন আরা বেগম, রেনুজা বেগম, সেলিনা বেগম, রওশন আরা বেগম, রোকেয়া বেগম, আয়েশা বেগম, লুৎফা জালাল, ছায়ারানী মল্লিক, লতিফা ইয়াসমিন, সাহিদা আক্কাছ, কনা মজুমদার, কিরণ বালা দেবী, সালমা আমীন, সালেহা খাতুন, শিরীন রহমান, নফছুন নাহার হাবিবা, মনিরাতুল আলম, লুৎফন নাহার, সাহানা ইসলাম, নূরুন্নাহার, রোকেয়া বেগম, সুলতানা সাঈয়েদা, নুরজাহান রব, সাইদা মঞ্জুর, বেগম মুস্তারী আহমেদ, সেলিনা মোহসিন, শীলা রাণী সাহা, শাহীন আক্তার, ফৌজিয়া আলম, জাকিয়া মাহবুব, আমাতুল্লাহ বেগম, রাহিমা ফেরদৌস, নাসরীন আক্তার, জিয়াউন নাহার খানম, নাছিমা আক্তার, সিনারা মান্নান, মুক্তি রানী পোদ্দার, মাহমুদা আখতার, রঞ্জুশ্রী কুন্ডু, সেণিরা আক্তার, নাসিমা আখতার, মেহেরুন নেছা, রওশন আরা বেগম, ফিরোজা বেগম, ঝুমু রাণী পোদ্দার, লায়লা ফেরদৌস আরা মজুদার ও রিক্তা রাণী কুন্ডু।
রতœগর্ভা মায়েদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, উপস্থিত সব রতœগর্ভা মায়ের মুখে বিজয়ের হাসি। আপনারা এক একজন সফল যোদ্ধা। অনেক কঠিন পরিশ্রম ও ত্যাগ স্বীকার করেছেন আপনাদের সন্তানদের প্রতিষ্ঠিত করতে। সমাজে সু-প্রতিষ্ঠিত হয়ে আপনাদের পরিশ্রমের মূল্য সন্তানেরা দিয়েছে।
তিনি আরও বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মা হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি মহান মুক্তিযুদ্ধেও অসামান্য অবদান রেখেছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য সহধর্মিণী হিসেবে বঙ্গমাতা সন্তানদের সু-প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সংবিধানে নারীর সম অধিকার প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন এবং বঙ্গবন্ধুই বাংলাদেশে প্রথম নারীর ক্ষমতায়ন করেন।
বক্তারা বলেন, শিশুকে ভবিষ্যতের আদর্শ সন্তান হিসেবে গড়ে তুলতে মায়েরা প্রধান ভূমিকা পালন করেন। এজন্যই শিশুর সবচেয়ে বড় সঙ্গী হচ্ছে তার মা।
ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. ওয়ালিউল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন আইইবি’র সহসভাপতি প্রকৌশলী মো. নুরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মনজুর মোর্শেদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দি ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন। অনুষ্ঠান শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।