‘ফেসবুকে কয়েকটি শব্দ লিখলেই উন্নয়ন সম্ভব নয়’ -মাশরাফী

91

নড়াইল কণ্ঠ : ‘আমাদের সরকার থেকে যে জিনিসটা আপনাদের জন্য আসছে বরাদ্দ, সেই জিনিসটা আপনাদের হক, এইটা যারা নেতাকর্মী অবশ্যই তাদের হক না। এইটা আপনাদের হক, আপনারা বুঝে নিবেন। এখন বুঝতে যেয়ে অনেক সময় পাননি, কিন্তু এখন সেই সময় নেই। আপনারা লিখিত কমপ্লে্ইন করবেন। এখানে অনেক সিনিয়র নেতাকর্মীরা আছেন তাদের কাছেও জানাবেন এবং আমার কাছেও জানাবেন। আশা করি সবাই আন্তরিক হলেই আমাদের সমস্যাগুলো সমাধান করা সম্ভব।’

তিনি ফেসবুককে উন্নয়ন নিয়ে লেখালেখি সম্পর্কে বলেন, ‘সামনে তাকান, ভালো কিছু আশা করেন অবশ্যই হবে। কিন্ত তার আগে ফেসবুকে কয়েকটি শব্দ লিখে স্বপন দেখে দেশের উন্নয়ন সম্ভব হয়নি, কোন দিন হবেও না। দেশে দশ বছর ফেসবুক আসছে, অনেকে লিখে গেছেন কিছু হয়নি। ফেসবুকে লেখা-লেখি করে কিছুই হয় না।’

গত ৮ আগস্ট বৃহস্পতিবার (০৮ আগস্ট) বিকালে মাইজপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে এক উন্মুক্ত সংলাপ অনুষ্ঠানে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা তার নিজ ইউনিয়ন মাইজপাড়ায় জনগণ ও নেতাকর্মী সম্পর্কে এ সব কথাগুলি বলেন।

মাদকমুক্ত এলাকা গড়তে মাশরাফি বলেন, ‘আমি ঢাকায় থাকি আমি জানি না এখানে কে মাদক বিক্রি করছে, আপনারাই জানেন এখানে মাদক কে বিক্রি করছে। ঐজিনিসগুলোই আপনাদেরকে একটু আমাকে সহযোগিতা করতে হবে। এখানে ভয়ের কিছু নাই। আপনাদেরকেই এগিয়ে আসতে হবে। এই ধরণের মানুষের সংখ্যা খুবই কম। ভালোমানুষের সংখ্যা এখনো অনেক বেশি। ভালো মানুষগুলো চুপ আছে বলেই আমরা ঘুরে দাড়াতে পারছি না।’

প্রকৃত কৃষকের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা সংলাপে বলেন, ‘কৃষক যারা আছেন তারা যে সুযোগ সুবিধা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দিচ্ছেন সেই সুযোগ সুবিধা যেন আপনার সরাসরি পান। ইতিমধ্যে ধান বিক্রয় নিয়ে একটা কথা হয়েছে আপনারা জানেন, আপনারা সরাসরি ধানটা নিজে গিয়ে দিয়ে আসবেন। তাহলে হবে কি আপনারা উপকৃত হবেন। আপনার অধিকার আপনারা বুঝে নিবেন।’

এ সময় তিনি এলাকার মানুষের বেকারত্ব নিরসন নিয়ে কথা বলেন, ‘বেকার সমস্যা একটা বড় সমস্যা আমাদের। এটা যেশুধু আমাদের এখানেই তা নয়, এটা সারা বাংলাদেশে। আমাদের জেলায় একটু সুযোগ সুবিধা কম আছে। আমারা এটা নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করছি। তবে সকলকে জানতে হবে, অবশ্যই লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তিণ হতে হবে।’

‘সরকারের বরাদ্দ জনগণের হক, নেতাকর্মীদের নয়’ -মাশরাফী || Narailkantho