ছাত্রদলের সংকট নিরসনে আব্বাস-গয়েশ্বরের সক্ষমতা নিয়ে সংশয়!

49

ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংকটের সমাধানে স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে দায়িত্ব দিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

এদিকে সূত্র বলছে, ছাত্রদলের পূর্বের কমিটিগুলোতে নিজ নিজ পছন্দের নেতাদের কৌশলে স্থান দেয়ার অভিযোগ রয়েছে এই দুই নেতার বিরুদ্ধে। তাই ছাত্রদলের সৃষ্ট সংকট সমাধানে তারা কতটুকু স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে পারবেন তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে পদ প্রত্যাশীদের মাঝে।

ছাত্রদলের সৃষ্ট সংকটে দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই নেতার সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সহ-সভাপতি এজমল হোসেন পাইলট বলেন, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দুই নেতার বর্তমান অবস্থা না জেনেই হয়তো তাদের এত বড় দায়িত্ব দিয়েছেন। সাবেক ছাত্রদল কমিটির সভাপতি রাজীব আহসান তো মির্জা আব্বাসের প্রিয় পাত্র ছিলেন বলেই এত বড় পদ পেয়েছিলেন। মির্জা আব্বাসদের মতো নেতাদের স্বজনপ্রীতি ও অছাত্রদের তোষণ করার কারণে ছাত্রদল বিগত এক দশকে এক ধরণের রাজনৈতিক কোমায় চলে গিয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় তো প্রচণ্ড সাম্প্রদায়িক নেতা। তার পুত্রবধূ সংসদে স্থান না পাওয়ায় তিনি দলের উপর চরম বিরক্ত। সুতরাং তার মতো বিক্ষুব্ধ নেতা যে আমাদের সঙ্গে ন্যায় বিচার করবেন, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। বিতর্কিত নেতাদের বাদ দিয়ে তুলনামূলক স্বচ্ছ নেতাদের এই দায়িত্ব দিলে আমরা এমন সংশয় প্রকাশ করতাম না।