নড়াইলে একশিশু বলৎকারের স্বীকার ॥ শিশুসহ পিতামাতা হাসপাতাল থেকে উধাও

135

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইল সদরে ৪বছরের এক শিশু বলৎকারের স্বীকার হয়েছে। নড়াইল সদর হাসপাতাল থেকে হটাৎ করে শিশুসহ পিতামাতা উধাও ? পুলিশ হাসপাতাল ও বাড়িতে তল্লাসি চালিয়েও শিশু রাফিন ও তার অবিভাবকদের সন্ধান পাইনি।

নড়াইল সদর হাসপাতাল ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, নড়াইল সদর উপজেলার ২নং হবখালি ইউনিয়নের বিলডুমুরতলা গ্রামের মারুফ মোল্লার বলৎকারের স্বীকার শিশু পুত্র রাফিন(৪)। শনিবার (১৩ফেরুয়ারি) সন্ধ্যায় তাকে প্রতিবেশি রত্তশন এর পুত্র জালাল মোল্লা (১৮) ফুসলিয়ে পাশে একটি গমক্ষেতে নেয়। ওখানে তাকে বলৎকার করলে সে চিৎকার কান্নাকাটি করে। এ সময জালাল দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। মারুফকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা ও তার পরিবারের সদস্যরা উদ্ধার করে ঐ রাত্রে ৭টা ৫৫মি: নড়াইল সদর হাসপাতালে জরুরী বিভাগে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ভির্তি করে নেয়।

রবিবার (১৪ফেরুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় মহিলা ওয়ার্ডের পশ্চিমে শেষ প্রান্তে ফ্লোরে মারুফ মোল্লা তার মা, স্ত্রী, সাশুড়িসহ অন্যান আত্মিয়রা এ ঘটনা সাংবাদিকদের জানান। তারা আরো জানান, এলাকার একটি মহল আমাদেরকে শিশু পুত্র রাফিনকে নিয়ে অন্যত্র চলে যেতে হুমকি দিচ্ছে। এঘটনা জানার পর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুভাস বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনা জানেন না বলে জানান। এব্যাপারে খোঁজ-খবর নিচ্ছেন বলে জানান। হবখালি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাদশা মোল্যা এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে সন্ধ্যায় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুভাস বিশ্বাস সাংবাদিকদের জানান, বলৎকারের স্বীকার শিশু ও তার পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে ও বাড়িতেও নেই বলে নিশ্চিত করেছেন।