মাশরাফি’র ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিনামূল্যে চক্ষু ক্যাম্প

82

নড়াইল কণ্ঠ : “অন্ধজনে দেহ আলো” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ‘নড়াইল জেলাকে অন্ধত্ব মুক্ত’ করার লক্ষ্যে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন দিনব্যাপি চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়েছে।


রবিবার (২৩ জুন) সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নড়াইল শরীফ আব্দুল হাকিম ডায়াবেটিক সেন্টারে খুলনার বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের সার্বিক তত্বাবধায়নে এ চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্প পরিচালিত হয়। এ চক্ষু হাসপাতালের চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মো. আবুল কালাম আজাদ ও ডা. সেলিনা আক্তার নড়াইলে জেলার থেকে আগত প্রায় সাড়ে ৪’শ রোগীর চোখ পরীক্ষা করে দেখেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে, এসকল রোগিদের মধ্যে ৩৮৭জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় এবং জটিল ছানিপড়া ৬৩ জন রোগীকে খুলনার বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের নিজস্ব পরিবহণে খুলনায় নিয়ে যায় হয়। এ ৬৩ জন রোগিদের বিনাখরচে অপারেশন, লেন্স, চশমা সহ চিকিৎসাসেবা দেয়ার পর আগামি ২৫ জুন নড়াইলে পৌঁছিয়ে দেয়া হবে।

জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার তার নিজ হাতে গড়া ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’ এর উদ্যোগে এবং পার্শ্ববর্তী জেলা মাগুরার ‘বদরউদ্দিন-হিঙ্গুলজান স্মৃতি কল্যাণ পাঠাগার’ ও ‘দি ফ্রেড হলোস ফাউন্ডেশন’ এর সহযোগিতায় এ চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়।

এদিকে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের স্বাস্থ বিষয়ক সমন্বয়ক এ্যাভোকেট ইসরাফিল খবির (রাজু) জানান, খুলনার বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতাল, মাগুরার ‘বদরউদ্দিন-হিঙ্গুলজান স্মৃতি কল্যাণ পাঠাগার’ ও ‘দি ফ্রেড হলোস ফাউন্ডেশন’ এর সহযোগিতায় নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন ‘নড়াইল জেলাকে অন্ধত্ব মুক্ত’ করতে প্রাথমিকভাবে এ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সকলের সহযোগিতা পেলে জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ইউনিয়নে গিয়ে এধরনের সেবা দেয়ার জন্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার ইচ্ছা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, এ কার্যক্রমটি সফল করতে হায়দার আপণসহ নিবেদিত কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক দিনরাত পরিশ্রম করেছে।

এ সময় হায়দার আপণ জানান, নড়াইল জেলার চিকিৎসাসেবা নিয়মিতভাবে নড়াইলে চক্ষুরোগী সনাক্তকরা এবং বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হবে।

আই ক্যাম্প ও মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’সম্পর্কে জানতে নিচের ভিডিও লিংকে ক্লিক করুন: