বিশ্বের এক নাম্বার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান

77

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিজ্ঞাপন, বিশ্বের এক নাম্বার অলরাউন্ডার। যিনি মাঠে নামলেই বাংলাদেশ এবং বিশ্ব ক্রিকেটের অনেক রেকর্ডই পালটে যায়। দ্বাদশ বিশ্বকাপের ২৩তম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজের ২০২তম আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামেন সাকিব। আর এই ম্যাচেই তিনি গড়েন কিছু রেকর্ড, যা তাকে নিয়ে যায় গ্রেটদের কাতারে।

পরিসংখ্যান দেখা যায়-
বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান
দ্বাদশ বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হিসেবে ৫ ম্যাচ খেলে ৬৮.৬০ গড়ে ৩৫৩ রান সংগ্রহ করেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চ। কিন্তু ২৩তম ম্যাচে পাল্টে যায় এই তালিকা। ফিঞ্চকে সরিয়ে এই তালিকায় আবারো এক নম্বরে এখন সাকিব। ৪ ম্যাচ খেলে ১২৮ গড়ে ৩৮৪ রান করেছেন তিনি। সর্বোচ্চ ১২৪ রান করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। এই তালিকায় তিন নম্বরে আছেন রোহিত শর্মা। ৩ ম্যাচ খেলে ৯৭.৫৫ গড়ে ৩১৯ রান করেছেন ভারতের এই ওপেনার।

ক্যারিয়ারের দ্রুততম ১০০০ রানের মাইলফলক
২০০৬ সালের ৬ আগস্ট হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক হয়েছিল সাকিবের। ক্যারিয়ারের ১০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিবকে খেলতে হয় ৩৮ ইনিংস। ২০০৮ সালের ১২ মার্চ ঢাকায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে তিনি এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। ১০০১ রান থেকে ২০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিব খেলেন ৩১ ইনিংস। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০০৯ সালের ২৯ অক্টোবর তিনি এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। ২০০১-৩০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিবকে খেলতে হয় ৩৬ ইনিংস। ২০১১ সালের ৯ এপ্রিল ঢাকায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে তিনি এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। ৩০০১-৪০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিবকে খেলতে হয় ৩১ ইনিংস। ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত একাদশ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ক্যানবেরাতে তিনি এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। ২০১৭ সালের ১৫ অক্টোবর কিম্বারলিতে দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচে তিনি স্পর্শ করেন ৫ হাজার রানের মাইলফলক। এই মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিব খেলেন ৩২ ইনিংস। ২০১৯ সালের ১৭ জুন দ্বাদশ বিশ্বকাপের ২৩তম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাকিব স্পর্শ করেন ৬ হাজার রানের ল্যান্ডমার্ক। এই মাইলফলক স্পর্শ করতে সাকিব খেলেন মাত্র ২২টি ইনিংস।

সেরা অলরাউন্ডার তালিকায় সাকিব
দ্বাদশ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২০তম ওভারে মার্কারামের উইকেট নিয়ে সাকিব একদিনের ক্রিকেটে অলরাউন্ডার হিসেবে ২৫০ উইকেট এবং ৫ হাজার রানের এলিট ক্লাবে নিজের নাম লেখান। সাকিব এই এলিট ক্লাবের সদস্য হয়েছেন সবচেয়ে কম ১৯৯ ম্যাচ খেলে। যেখানে একই রেকর্ড গড়তে শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি সনাৎ জয়সুরিয়া খেলেছেন ৩০৪ ম্যাচ। তাছাড়া পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি ২৭৩, আব্দুল রাজ্জাক ২৩৪ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক কালিসকে ২৯৬ ম্যাচ খেলতে হয়েছে। সাকিবই একমাত্র অলরাউন্ডার যিনি ২০০’র কম ম্যাচ খেলে এই কীর্তি গড়েন।

বিশ্বকাপে সেরা স্পিনার তালিকায় সাকিব
বিশ্বকাপে স্পিনার হিসেবে সাকিব উইকেট নিয়েছেন ২৮টি। দ্বাদশ বিশ্বকাপের ২৩তম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন লুইস এবং নিকোলাস পুরানের উইকেট নেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। আর এই দুই উইকেট নিয়েই বিশ্বকাপে স্পিনার হিসেবে পাকিস্তানের লেগ-স্পিনার মোশতাক আহমেদ এবং শ্রীলঙ্কার সনাৎ জয়সুরিয়াকে সরিয়ে ৮ম স্থানে উঠে এলেন সাকিব। সাকিবের সামনে এখন আছেন ৭ জন স্পিনার। এই সাতজন স্পিনার হলেন মুত্তিয়া মুরলিধরন (৬৮), ড্যানিয়েল ভেট্টোরি (৩৬), ব্রাড হগ (৩৪), ইমরান তাহির (৩২), শেন ওয়ার্ন (৩২), অনিল কুম্বলে (৩১) ও শহীদ আফ্রিদি (৩০)।

বাংলাদেশের পক্ষে বর্তমান সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড় সাকিবের
বাংলাদেশের হয়ে খেলা বর্তমান খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড় সাকিবের। ২০২ ম্যাচে ৩৭.৪২ গড়ে তার মোট রান এখন ৬১০১। এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন তামিম ইকবাল। ৩৬.০৫ গড়ে ১৯৭ ম্যাচে ৬৭৪৩ রান সংগ্রহ করেছেন এই মারকুটে ওপেনার।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের জুটিতে সাকিব
শুধুমাত্র ক্রিকেট বিশ্বকাপেই নয় বরং বাংলাদেশের পক্ষে চতুর্থ উইকেট জুটির রেকর্ডের অংশীদার এখন সাকিব আর লিটন দাসের জুটি। দ্বাদশ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে এই দুইজন গড়েন ১৮৯ রানের অবিচ্ছিন জুটি এবং নিশ্চিত করেন দলের জয়।

এছাড়াও বাংলাদেশের পক্ষে পঞ্চম এবং নবম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডের অংশীদারীও সাকিব। ২০১৭ সালের ৯ জুন কার্ডিফে মাহমুদুল্লাহকে সঙ্গে নিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিব গড়ে তুলেন ২২৪ রানের জুটি।

২০০৮ সালের ১৬ এপ্রিল পাকিস্তানের মুলতানে মাশরাফিকে নিয়ে গড়ে তুলেন ৯৭ রানের জুটি। এটিই নবম উইকেট জুটিতে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

চলতি বিশ্বকাপের ৪ ম্যাচে বল হাতে ৫ উইকেট এবং ব্যাট হাতে ৩৮৪ রান করে একজন অলরাউন্ডার হিসেবেও বাকিদের ছাড়িয়ে গেছেন ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের ১ নম্বর অলরাউন্ডার সাকিব।

নিজেকেই ছাড়িয়ে যাওয়ার যে চেষ্টা সাকিব করে যাচ্ছেন নিশ্চিতভাবে বাংলাদেশের ক্রিকেট ভক্তরা চাইবেন সেটা যেন অব্যাহত থাকে। আর এই পারফরমেন্স দিয়েই ভক্তদের মনে স্থান করে নিয়েছেন বিশ্বের অলরাউন্ডার নাম্বার ওয়ান, সাকিব আল হাসান।