খুলনায় রূপান্তরের চিংড়ি শিল্পের পটগান প্রদর্শনী

0
131

নড়াইল কণ্ঠ : বাংলাদেশ সরকার প্রণীত শ্রম আইন- ২০০৬ (সংশোধিত- ২০১৩) হিমায়িত চিংড়ি কারখানাগুলিতে বাস্তবায়ন ও কারখানার মালিক-শ্রমিক সম্পর্ক উন্নয়ন এবং শ্রমিকের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক শ্রমসংস্থা (আইএলও) ও বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস্ এক্সপোটার্স এসোসিয়েশনের সহযোগিতায় এবং রূপান্তরের পরিবেশনায় দুইটি হিমায়িত চিংড়ি কারখানায় মালিক-শ্রমিক-কর্মচারীদের উপস্থিতিতে চিংড়ি শিল্পের পটগান প্রদর্শনী হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে ব্রাইট সী ফুডস্ লিমিটেড’এর সভাকক্ষে পটগান প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ফ্যাক্টরীর লেবার কমপ্লেইনস্ অফিসার শাহজাহান মুরাদ। কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন ফ্যাক্টরীর প্রশিক্ষণের সমন্বয়কারী নবনীতা বড়–য়া ও শাহজাহান মুরাদ।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রূপান্তরের কর্মসূচী সমন্বয়কারী অসীম আনন্দ দাস।
পরে দুপুর ২টায় জাহানাবাদ সী ফুডস্ লিমিটেড’এর প্রশিক্ষণ কক্ষে চিংড়ি শিল্পের পটগান প্রদর্শনীর উদ্বোধন ঘোষনা করেন শ্রম অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান। পটগান প্রদর্শনী শেষে কুইজ প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করেন সিনিয়র লেবার অফিসার মোঃ আফতাবুজ্জামান।

আলোচকরা বলেন, বাংলাদেশ সরকারের শ্রম আইন- ২০০৬ (সংশোধিত- ২০১৩) এর বাস্তাবায়ন ও শ্রমিকদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করণে আইএলও’এর উদ্দোগে শ্রমিক-কর্মচারীদের যে ধরণের  প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

পাশাপাশি রূপান্তর পরিবেশিত পটগানের মাধ্যমে কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের মাঝে আরও সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। বাংলাদেশের জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার সার্থে চিংড়ী শিল্পের প্রসার ঘটানো প্রয়োজন, তাই হিমায়িত চিংড়ী কারখানায় মালিক-শ্র্রমিক ঐক্যবদ্ধভাবে কারখানার উন্নয়ন ও উৎপাদনে অবদান পালন করতে হবে।