মাশরাফি’র ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চিত্রা-নবগঙ্গার কচুরিপানা অপসারণ কার্যক্রম উদ্বোধন

43

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইল-২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মাশরফী বিন মোর্ত্তজার নিজের হাতে গড়া ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’ এর উদ্যোগে জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সার্বিক সহায়তায় নড়াইলের চিত্রা ও নবগঙ্গা নদীর নাব্যতা রক্ষা এবং নৌযান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে কচুরিপানা অপসারণ অভিযান কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।
এ উপলক্ষে বুধবার (২৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় বাঁধাঘাট পয়েন্টে ‘ক্লিন নড়াইল, গ্রিন নড়াইল কর্মসূচির’ আওতায় চিত্রা নদীর আড়া-আড়ি কাছি দিয়ে জোয়ারে কচুরিপানা আটকে দিয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা।
উল্লেখ্য, এ কচুরিপানা অপসারণ অভিযান ১৯ এপ্রিল হতে অনুষ্ঠানিকভাবে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন শুরু করে। এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে নলদী ত্রিমোহনা হতে শুরু করে গাজিরহাট পেড়লী পর্যন্ত।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার), বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: শাহনেওয়াজ তালুকদার, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা সেলিম, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার গর্বিত পিতা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের পরিবেশ বিষয়ক সমন্বয়ক কাজী হাফিজুর রহমান, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ ও নড়াইল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মীর্জা নজরুল ইসলামসহ সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিকবৃন্দ, ফাউন্ডেশনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

অতিথিবৃন্দ জানান, নড়াইলের চিত্রা ও নবগঙ্গা নদী বর্তমানে কচুরিপানার কারণে নৌ-চলাচল বন্ধ হওয়ার পথে। শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ নদী পার হতে চরম বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে। তা ছাড়া কচুরিপানার কারণে নদীর নাব্যতাও কমে যাচ্ছে। নদীর নাব্যতা রক্ষা এবং মানুষের সুবিধার্থে নদী দুটির কচুরিপানা পরিষ্কার অভিযান শুরু করা হয়েছে।
নদীতীরবর্তী রতডাঙ্গা এলাকার মৎস্যজীবী প্রদ্যুৎ বিশ্বাস জানান, চিত্রা নদীতে আমরা জারজলাস করে মাছ ধরে বিক্রি করে জীবীকা নির্বাহ করতাম, কচুরিপানার কারনে আমরা যারা এ পেশায় আছি তারা দির্ঘ ২মাস বেকার রয়েছি। আমাদের পরিবারের খুব সমস্যা হচ্ছে। এক সময় এ নদীতে নিয়মিত জোয়ার ভাটা চলতো। এখনও আছে তবে পানির জোর কমে গেছে। তারপর এই কচুরিপানার কারনে আরো বেশি অসুবিধা হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে এ নদী অচিরেই জোয়ার-ভাটা বন্ধ হবে এবং নদী মরে যাবে।

মৎস্যজীবী উজ্জ্বল সরকার জানান, চিত্রনদীর কচুরিপানা অপসারণের জন্য এমপি মাশরাফি’র ভাইয়ের নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন উদ্যোগে নিয়েছে এতে আমরা খুব খুশি। নদী পরিস্কার থাকলি আমরা জালজলাস করে মাছ ধরে জীবীকা চালাতি পারবো।
এ সময় জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা জানান, এ কার্যক্রম চলবে আগামি ২ মে পর্যন্ত। কচুরিপানা অপসারণ অভিযান চলাকালে চিত্রা নদী পথে সকল প্রকার টলার, নৌকাসহ অন্যান্য যান সাবধানতার সাথে চলাচল করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আমরা সকলে নদী রক্ষা করি, কচুরিপানা মুক্ত চলাচলযোগ্য চিত্রা, নবগঙ্গা, কাজলা, মধুমতি নদী গড়ে তুলি।